উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সহযোগিতায় ভিক্ষুক বৃদ্ধাকে ঘর দেওয়ার আশ্বাস

 

এস,এম,শামীম(ফুলপুর)ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ- ফুলপুরের ভিক্ষুক বৃদ্ধা বিধবা মালেকার জীবন যুদ্ধের কাহিনী শুনে সরকারি বরাদ্দকৃত ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেন ফুলপুরের জনবান্ধব, গরিবের বন্ধু, অসহায় মানুষের আশার আলো, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব শীতেষ চন্দ্র সরকার।

উল্লেখ্য, ফুলপুর উপজেলার ৭নং রহিমগঞ্জ ইউনিয়নের ধন্তা(কুলোরকান্দা) গ্রামের ভিক্ষুক বিধবা বৃদ্ধ মালেকা খাতুন (৬৩) ১২ বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনার মৃত্যু পর স্বামীর রেখে যাওয়া স্মৃতি আড়াই শতাংশ জায়গা থাকলেও নেই থাকার মত একটি ঘর। জীবিকা নির্বাহের তাগিদে সারাদিন বাড়ি-বাড়ি ঘুরে ভিক্ষা করে ক্লান্ত শরীর নিয়ে ভাঙ্গা খোপরি ঘরে শুয়ে থাকলেও একটু শান্তির ঘুম আসেনা চোখে।

ফেসবুক সহ ভিবিন্ন পত্র পত্রিকা অনলাইন নিউজ পোর্টালে, গত ৫ সেপ্টেম্বর প্রতিবেদন প্রকাশের দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলেও অবশেষে আশা আলো দেখার সুযোগ প্রসারিত হচ্ছে বলে ধারণা করা যাচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শীতেষ চন্দ্র সরকারের নির্দেশনায় ও সহযোগিতায়, সরকার প্রদত্ত ঘর প্রদানের আবেদন ফরর্ম জমা দিতে বলা হলে, তাকওয়া অসহায় সেবা সংস্হার প্রতিষ্ঠাতা- পরিচালক ও সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক, তপু রায়হান রাব্বির সার্বিক সহযোগিতায় বৃদ্ধা বিধবা মালেকা খাতুনকে সঙ্গে নিয়ে, ৬ ডিসেম্বর (রবিবার) সকাল ১১ ঘটিকায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল সহ উপজেলা কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্হিত হয়ে “সরকারি গৃহ নির্মাণের আবেদন ফরর্ম” জমা দেওয়া হয়।

বিধবা ভিক্ষুক বৃদ্ধা মালেকা খাতুন বাসস্থানহীন একজন মানুষ,সংসারে নির্দিষ্ট কোনো আয়ের উৎস না থাকায়,পরিবারের দু’জন সদস্যদের নিয়ে অতি কষ্টে দিনাতিপাত করছেন।
তাই একজন ঘর বরাদ্দ উপকারভোগী হিসেবে অন্তর্ভুক্তি করার জন্য আবেদন ফরর্মে উল্লেখ্য করা হয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ঈদ উপহার নিয়ে মানুষের দোয়ার দোয়ারে কামরুল হাসান রিপন

৬৭ ও ৬৮ নং ওয়ার্ডের ১০০০ পরিবারকে ঈদ উপহার দিলেন কামরুল হাসান রিপন স্টাফ রিপোর্টার …

error: Content is protected !!