কেরানীগঞ্জে কবর থেকে একদিনে সাত লাশ চুরি

ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার তারানগর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের ইটখোলা কবরস্থান থেকে সাতটি লাশ চুরির ঘটনা ঘটছে। ২ ডিসেম্বর রাতের যে কোন এক সময় লাশগুলি চুরি করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চ্যল্যের সৃষ্টি হয়েছে। লাশ চুরির ঘটনায় ঐ কবরস্থানে দাফনকৃতের আত্মীয়স্বজনের মধ্যে দুশ্চিন্তা ও লাশ চুরি হয়ে যাওয়ার আতঙ্ক বিরাজ করছে।

লাশগুলো হলো তারানগর ইউনিয়নের ফজলে করিম,সাহাবুদ্দিন,ফজিলতুন নেসা,আমির, হাজী আ: করিম,সিরাজুল ইসলাম ও রওশন আরার।

স্থানীয় মো: মনির হোসেন জানান, গতকাল রাতে একসাথে ৭টি লাশ চুরি হয়েছে। এর আগে এমনটা ঘটেনি কখোনো। আমরা এলাকাবাসী নিজেরাই কালকের মধ্যে বসে এ বিষয়ে একটা কার্যক্রম হাতে নিতে হবে। নাইলে ভবিষ্যতে এমনটা আবারো হতে পারে।

মো: সাদেক নামে অন্য একজন বলেন, বছর খানেক আগে দুইটি লাশ কবরস্থান থেকে গায়েব হয়ে গিয়েছিলো। তখন ভেবে ছিলাম হয়তো শিয়াল নিয়ে গেছে। কিন্তু এবারের বিষয়টিতে নিশ্চিত হলাম যে লাশ কবর থেকে চুরি হয়েছে কোন পশু পাখি নিয়ে যায় নি।

প্রবীন সৈয়দ আলী বলেন, আগে মাঝে মাঝেই কবরের চারপাশে খুড়া দেখতাম ভাবতাম হয়তো শিয়াল করেছে। কিন্তু এবার সকালে এসে খোড়া কবরগুলোর আশে পাশে মানুষের পায়ের ছাপ দেখতে পেয়েছি। প্রশাসনের কাছে এর একটা সুষ্ঠ সমাধান চাই।

এ ব্যাপারে দুই নং ওয়ার্ড মেম্বার আব্দুল হক বলেন, ঘটনাটা শুনেছি। এখোনো কোন ব্যবস্থা নেই । এমন ঘটনা আগে ঘটেনি তাই ব্যবস্থা কি নিবো জানি না। তবে দ্রুতই ব্যবস্থা নেবো।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক অপারেশন আসাদুজ্জামান টিটু বলেন, এব্যাপারে এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। লাশ চুরি হয়ে থাকলে এটি খুবই দুঃখজনক ঘটনা। এক্ষুনি আমি বিষয়টি দেখছি। এলাকাবাসীর সহায়তায় লাশ চুরি রোধে যা যা করনীয় সবই করবো।

উল্লেখ্য, কবরস্থানটিতে ইটখোলা ও আশেপাশে কয়েকটি গ্রামের লাশ কবর দেওয়া হয়। কবরস্থানটি জনবসতির মাঝে অবস্থিত হওয়া সত্যেও কি ভাবে লাশ চুরির ঘটনা ঘটছে তা নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। #

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

রংপুরে নকল কয়েল কারখানায় অভিযান

এম হামিদুর রহমান লিমন, রংপুরঃ রংপুরের হারাগাছে অনুমোদনবিহীন ও নকল কয়েল তৈরির কারখানায় অভিযান পরিচালনা …

error: Content is protected !!