লোডশেডিং কেরানীগঞ্জের পাসপোর্ট অফিসের প্রধান সমস্যা

লোডশেডিং কেরানীগঞ্জের পাসপোর্ট অফিসের প্রধান সমস্যা

প্রায় ২ মাস হয়ে গেছে কেরানীগঞ্জে স্থানান্তর করা হয়েছে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস যাত্রাবাড়ি শাখার। কেরানীগঞ্জে আসার পর সুবিধা এবং অসুবিধা নিয়ে আলোচনার ফাকে পাসপোর্ট অফিসের ইনচার্জ হিসাবে দায়িত্বে থাকা সহকারী পরিচালক মাকসুদুর রহমান জানান, অধিকাংশ সময় লোডশেডিং থাকে । এটাই কেরানীগঞ্জের বর্তমান পাসপোর্ট অফিসের প্রধান সমস্যা।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় সুন্দর এবং মনোরম পরিবেশে  পাসপোর্ট অফিসে চলছে আবেদন ফর্ম জমা গ্রহন এবং পাসপোর্ট বিতরনের কার্যক্রম। রায়ের বাগ অফিসের চেয়ে এই অফিসটি তুলনামূলক ভাবে অনেক বেশি পরিসজ্জিত এবং গুছানো। ১৫ জন কর্মকর্তাদের একটি টিম গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা দেয়ার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। অফিসে ঢুকতেই প্রথমে নিচতলায় দেখা মিলে হেল্প ডেস্ক। পাসপোর্ট বিষয়ে সবধরনের প্রশ্ন এবং তার উত্তর মিলে এখান থেকেই। অফিসে কর্মরত সবাইকেই দেখা গেল খুবি আন্তরিকতার সাথে গ্রাহকদের সেবা দিতে।

তবে পরিবেশ আর সেবার মান যাই হোক না কেন, লোডশেডিং বর্তমানে পাসপোর্ট অফিসের জন্য প্রধান বাধা হয়ে দাড়িয়েছে, অত্যন্ত আক্ষেপের সাথে এমনটাই বললেন পরিচালক মাকসুদুর রহমান সাহেব। তার ভাষ্য মতে, আমাদের কাছে গ্রাহক সেবই প্রথম। গ্রাহকদের সবোচ্চ সেবা দানের জন্য আমরা সব সময় চেষ্টা করে থাকি। তবে বিদ্যুৎ বিভ্রটের কারনে বর্তমানে সেবার মানে কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। গ্রাহকদের সঠিক ভাবে সেবাদান করতে নানাবিধ সমস্যায় পরতে হচ্ছে বিদ্যুৎ না থাকার কারনে। জেনারেটর দিয়ে ও তো সারাদিন বিদ্যুৎ রাখা সম্ভপর হচ্ছে না। মেশিনারী জিনিস সমস্যা দেখা দিতেই পারে।

এ বিষয়ে কেরানীগঞ্জ বিদ্যুৎ অফিসে কথা বললে তারা জানান মূলত ঢাকা মাওয়া ৪ লেনের প্রকল্প  কাজের জন্যই বিদ্যুৎ বন্ধ রাখতে হচ্ছে। সেনাবাহীনি নিজ তত্বাবধানে এই কাজ করছে। রাস্তায় অনেক বৈদ্যুতিক তারের খুটি অপসারন করতে হচ্ছে। তাদের কাজের সুবিধা অনুযায়ী নির্দেশ মতোই বন্ধ রাখা হয় বিদ্যুৎ। ফলে পাসপোর্ট অফিসে ও লোডশেডিং হয়।

তবে আশার বানীও শুনালেন জনাব মাকসুদুর রহমান। ইতি মধ্যেই একটা জেনারেটর যদি প্রবলেম করে তা হলে বিকল্প হিসাবে ব্যবহারের জন্য আরেকটা জেনারেটর বেবস্থা করা হয়েছে

পাসপোর্ট অফিসে দালালদের দৌড়াত্ম নিয়ে কথা বললে মাকসুদুর রহমান জানান, পাসপোর্ট অফিসে কোন দালাল নেই। অত্যান্ত কঠড়তার সাথে তিনি দালালদের প্রতিরোধ করতে সর্বদা কাজ করে যাচ্ছেন। তবে পাসপোর্ট এড়িয়ার বাহিরে কিছু দালাল থাকলেও যেহুতু তার এড়িয়ার বাহিরে তাই তার ঐ রকম কিছু করার নাই ।তার পরেও তিনি বিষয়টি ঢাকা জেলা অফিস এবং কেরানীগঞ্জ উপজেলাকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। এছাড়া দালাল নির্মূলের জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহীনির মাধ্যমে পাসপোর্ট অফিসের আশে পাশে অভিযান চালানো হয়েছে এবং অনেক কে গ্রেফতার ও করা হয়েছে।

 

আরো পড়ুন : ডিসেম্বর এ কোন কোন এলাকায় ডিজিটাল আইডি কার্ড দিবে

নিউজ ঢাকা ২৪

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

এবার ছিন্নমূল মানুষের ঈদ আনন্দে পথশিশু ফাউন্ডেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক দেশে করোনা মহামারির মাঝেই উদযাপন হলো আরো একটি ঈদ ৷ “ঈদ মানে আনন্দ, …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!