ধনবাড়ীতে জমি নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ৭

 

জহিরুল ইসলাম মিলন, টাংগাইল( ধনবাড়ী) প্রতিনিধিঃ-টাংগাইলের ধনবাড়ী উপজেলার যদুনাথপুর ইউনিয়নের ঘাগরা গ্রামে ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত জমিতে রোপনকৃত বোনদের কাছা ধান জোর করে কেটে নিলেন আপন বড় ভাই প্রতিবেশীরা। বাধা দেওয়ার কারনে হত্যার উদ্দেশ্যে ভয়ানক হামলা-আহত ৭ জন।

ঘটনায় জানাযায়,গত কাল ২২ নভেম্বর সকাল ১১ঘটিকার সময় উপজেলার ঘাগড়া গ্রামের মৃত বছির উদ্দিনের ছেলে মো: রহিম উদ্দিন (তারা) (২৫),মৃত আ:রহমানের ছেলে মো: আদম আলী (৫৫),মো: আদম আলী ছেলে মো:হাদিছ (৩৫),সুরুজ আলীর ছেলে মো:সোহেল,মৃত আ:ছালাম এর ছেলে মো: আসাদুজ্জামান (৪৫) সর্ব সাং ঘাগড়া। সকলে মিলে বেআেইনী ভাবে ঘাগড়া গ্রামের মৃত বছির উদ্দিনের সাত মেয়ের ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত জমির মধ্য পাইজাম ধান রোপন করেন। উক্ত ধান না পাকতেই সকল বিবাদীগন মিলে উক্ত সাত বোনের জমি বেদখল করার জন্য মো: রহিম উদ্দিন (তারা) তার ভাড়া করা লোকজন নিয়ে জমির কাছা ধান কেটে বাড়ীতে নেওয়ার সময় মো: রহিম উদ্দিন তারার বোনেরা ও ভাগ্নে/ভাগ্নী বাধা দিলে তাদের উপর ভয়ানক সংঘর্ষ করে হত্যার উদ্ধেশে।

উক্ত বিয়ষ নিয়ে ধনবাড়ী উপজেলার বিলাসপুর গ্রামের নাজমা বেগম বাদী হয়ে ধনবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে নাজমা বেগম সাংবাদিকদের জানান। অভিযোগের বাদী নাজমা বেগম বলেন,ওয়ারিশ সূত্রে প্রাপ্ত আমাদের রোপনকৃত ধানের জমিতে অনধিকার প্রবেশ করে কাছা ধান কাটিয়া নিয়ে যাওয়ার সময় আমি,আমার স্বামী,আমার বড় বোন ফাহিমা,ভাগনী খোকী ও রাবিয়া বাধা নিষেধ করিলে ২নং বিবাদী হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড দিয়ে আমার স্বামীকে আমার সামনে মাথায় বারি মারিয়া গুরুতর জখম করে। ১নং বিবাদী বাশের লাটি দিয়া মারপিট করিয়া আমাকে ও আমার ছেলে আরিফ এর শরীরের বিভিন্ন স্থানে নিলাফুলা জখম করে। ৪নং বিবাদী লোহার রড দিয়ে আমার ভাগনী রাবেয়া আর বাম পায়ে ঘিরার উপরে বারি মারিয়া হাড় ভাঙ্গা জখম করে। ৫ নং বিবাদী আমার ভাগনী খোকী এ ডান হাতের বাহুর নিচে বামেমর লাটি দিয়া বারি মারিয়া গুরুতর জখম কর। ৩নং বিবাদী দা দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার নাতি জুবায়ের মাথায় কুপ মারিয়া কাটা রক্তাক্ত জখম করে এবং অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন আমাদের সকল কে বাশের লাটি দিয়া মারপিট করিয়া শরীরের নিলাফুলা জখম করে। আহতদের প্রথমে ধনবাড়ী উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্ম সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আনা হলে আহতদের মধ্যে ২জন কে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।
উপরোক্ত বিয়ষ নিয়ে সরেজমিনে গেলে দেখাযায় কাছা ধান ১নং বিবাদীর মো: রহিম উদ্দিন (তারার)বাড়ীর বাইবারিতে রাখা আছে। বিবাদী মো: রহিম উদ্দিন (তারা) জানান আমরা সাত বোনের এক ভাই। বাবা মারা যাবার পড় দুই বোনের জমি আমি তাদের কিছু টাকা দিয়ে নিজের নামে নিয়ে নিয়েছি। কিন্তু দুই বোনের মুত্যু হয়েছে আর তিন বোন মিলে মোট ৫ বোনের অংশ তারা ভোগ দখল করে চাষাবাদ করে আসছে। আমি বোন ভাগনীদের সাথে কথা বলে তাদের জমি আমার নিজ নামে নেওয়ার জন্য এলাকার লোক জন নিয়ে বেশ কয়েক বার শালিশী বৈঠক করে প্রতি বোনের অংশ ১৭ শতাংশ জমি তারা পাবে আর তার বিনিময়ে আমি তাদের ২ লক্ষ টাকা দিতে চেয়েছি । কিন্তু তারা না মেনে উক্ত জমি চাষ করে খাচ্ছে। তাই আমি উক্ত জমির ধান কেটে আমার বাড়ীতে আনার সময় বাধা দেওয়ার কারনে তাদের লাটি পেটা করেছি। আমাদের পক্ষে ২ জন আহত হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

নরসিংদীতে দুইটি বিদেশী পিস্তল ও ইয়াবাসহ আটক ৬

হৃদয় এস সরকার,নরসিংদী: নরসিংদীতে পৃথক অভিযানের মধ্যদিয়ে দুইটি বিদেশী পিস্তল, দুই রাউন্ড কার্তুজ ও ১৯০ …

error: Content is protected !!