দৌলতদিয়া যৌনপল্লী থেকে তরুনী উদ্ধার, গ্রেপ্তার ১

শেখ রনজু আহাম্মেদ রাজবাড়ী প্রতিনিধি: গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লী থেকে রোববার ১৯ বছর বয়সী এক তরুনীকে উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় রোজিনা বেগম (২৯) নামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের পূর্ব পাড়া গ্রামের (যৌনপল্লী) সুমন মন্ডলের স্ত্রী।

উদ্ধার হওয়া তরুনী জানান, সে নাটোর জেলার হতদরিদ্র কৃষকের মেয়ে। বেশ কিছুদিন আগে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার এক লোকের সাথে তার ফোনে কথা হয়। পরিবারের অভাব অনটনের বিষয়টি তার কাছে খুলে বলে সে। এক পর্যায়ে ওই লোক তাকে গার্মেন্টসে ভালো বেতনে চাকুরী নিয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে চলতি বছর মার্চ মাসে ট্রেনে করে নাটোর থেকে গোয়ালন্দ ঘাট রেলস্টেশনে আসতে বলেন।

চাকুরীর আশায় তার কথা মত সে গোয়ালন্দ ঘাট স্টেশনে চলে আসে। কিন্তু তখন ওই ফোন নম্বরটি বন্ধ পেয়ে হতাশ হয়ে রেলস্টেশনে অপেক্ষা করতে থাকে।

এসময় রোজিনা বেগম তার (উদ্ধার হওয়া তরুনী) নাম ধরে ডেকে বলে তোমার চাকুরীর জন্য আমার সাথে যেতে হবে। রোজিনা তাকে সাথে করে নিয়ে যৌনপল্লীর একটি ঘরে আটকে রেখে জোরপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করে।

 

সেখান থেকে বিভিন্ন সময় পালানোর চেষ্টা করলেও কড়া পাহাড়ায় সে ব্যার্থ হয়। এ পরিস্থিতিতে রোববার ভোর রাতে সে সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে যায়। কিছুদুর যাওয়ার পর তার পিছু নেয় রোজিনা। এসময় সে চিৎকার চেচামেচি করলে স্থানীয় লোকজন ও যৌনপল্লীর অদুরে কর্তব্যরত পুলিশ তাকে উদ্ধার ও রোজিনা বেগমকে গ্রেপ্তার করে।

এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, এ ঘটনায় উদ্ধার হওয়া তরুনী বাদি হয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় মামলা দায়ের করেছে। গ্রেপ্তার হওয়ার রোজিনা বেগমকে রাজবাড়ীর আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

নওগাঁয় অনিয়মের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান বহিস্কার

নওগাঁ প্রতিনিধি: চাকুরি দেয়ার নামে অর্থ আদায় এবং ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণে অনিয়মের …

error: Content is protected !!