প্রতারনা করে সাধারন জনগন ঠকাচ্ছে সাজেদা হাসপাতাল

কেরানীগঞ্জের ছাটগায়ে অবস্থিত সাজেদা হাসপাতাল চিকিৎসার নামে প্রতারনা করে হাতিয়ে নিচ্ছে সাধারন জনগনের টাকা।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায় : যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো থাকায় এবং স্থানীয়দের জন্য কাছে হওয়ায় কোন রোগী অসুস্থ হলে প্রথমেই নেয়া হয় সাজেদা হাসপাতালে ।রোগীদের ভালো ভাবেই পর্যবেক্ষন না করে নানা প্রকার কঠিন অসুখের কথা বলে শুরুতেই মেজর অপারেশনের কথা বলে সাজেদা হাসপাতাল কতৃপক্ষ । দেখানো হয় রোগীদের আত্মীয় স্বজনদের ভয়ভীতি। উপায়ন্ত না দেখে রোগীর স্বজনরা রাজী হয়ে যায় তৎক্ষনাত। কারন এ ছাড়া তাদের কোন উপায় ও থাকে না। পরবর্তীতে দেখা যায় যে কারনে অপারেশন করা হয়েছে এমন কোন সমস্যাই ছিলো না। এছাড়া ও বিভিন্ন ভা্বে রোগীদের সাথে প্রতারনা করছে হাসপাতালটি। এমনটাই জানান স্থানীয়রা।

সম্প্রতি কেরানীগঞ্জের দৈনিক যুগান্তরের প্রতিনিধি আবু জাফর , সাজেদা হাসপাতালের প্রতারনা শিকার হয়েছেন। গেল ১৪ নভেম্বর তার স্ত্রী অসুস্থতা অনুভব করলে তিনি দ্রুতই নিয়ে যান সাজেদা হাসপাতালে, ডাক্তাররা, প্রাথমিক ভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষা করার পর জানান, দ্রুতই তার স্ত্রীর অপারেশন করাতে হবে। অন্যথায় রোগীর জীবন বিপন্ন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। কোন কিছু ভাবার সময় না পেয়েই তিনি দ্রুত অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন। দীর্ঘ এক ঘণ্টা চলে তার স্ত্রীর অপারেশন। অপারেশন শেষ হবার ১২ ঘন্টা পরে তাকে বেডে দেয়া হয়। অপারেশনের ২ দিন পর জনাব আবু জাফর জানতে পারলেন যে সমস্যার কথা বলে তার স্ত্রীর অপারেশন করা হয়েছে তার স্ত্রীর সেই ধরনের কোন সমস্যাই ছিলো না। পরীক্ষা করে বলা হয়েছিলো তার স্ত্রীর জরায়ুর একটি টিউবের ভেতর সমস্যা। পেট কাটার পর ডা: কাবেরী সালাম দেখেন টিউব ভালো। এ বিষয়ে আবু জাফর দ: কেরানীগঞ্জ থানাকে পুরো বিষয়টি জানান। কেরানীগঞ্জ থানার ওসির সাথে কথা বললে তিনি জানান,  আমরা সাংবাদিক আবু জাফরের স্ত্রীর ঘটনাটি শুনেছি। এবিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফোরহাদ মোড়ল নামে এক ব্যাক্তি সাজেদা হাসপাতালের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন তার শালিকার বাচ্চা হবার পরে সাজেদা হাসপাতাল কতৃপক্ষ বলে বাচ্চাকে আই সি ইউতে না রাখলে বাচ্চা মারা যাবে। এর জন্য প্রতিদিন ৮৫০০ টাকা খরচ হবে। কিন্তু বাচ্চার বাবা মা আই সি ইউ তে রাখতে রাজি হয় নি। তার পরেও বাচ্চাটির কিছু হয় নি। এর আগে ও তার ভাইয়ের বাচ্চার এমন কথা বলে ২৪০০০ টাকা বিল করে। এবং তার এক ভগ্নি পতির কাছ থেকে ৪৮০০০ টাকা বিল করে । এখন বুঝতে পারছি হাসপতাল কতৃপক্ষ প্রতারনা করেছে।

রহমত ভুইয়া নামের আরেকজন অভিযোগ করেন সাজেদা হাসপাতালে কোন রোগী চিকিৎসার জন্য গেলে ডাক্তাররা  প্রাথমিক অবস্থায় কোন ঔষধ না দিয়ে নানা ধরনের টেষ্ট করতে দেয়। আর টেষ্ট করানোর মাধ্যমে তারা সাধারন জনগনের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় লাখ লাখ টাকা। অনেক ক্ষেত্রেই টেষ্ট যেখানে দরকার পরে না।

এ ছাড়া ও  আলমগীর হোসেন নামে একজন দাবী করেন সাজেদা হাসপাতাল চলে বিদেশি সংস্থা এবং এন জি ও এর অনুদানের ভিত্তিতে। তাহলে সাধারন সেবার জন্য এতো টাকা কেন রাখা হয় ??? আগে সাধারন সেবা ৫০ টাকার বিনিময়ে পাওয়া যেত। কিন্তু এখন তার জন্য ১৫০ টাকা খরচ করতে হয়। রোগী সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় তারা ৩ গুন বেশি চার্জ কাটছে । যে খানে সরকারী হাসপাতালে চার্জ মাত্র ১০ টাকা।

এ ছাড়া  আরো অনেকে অভিযোগ করে, এখানে চিকিৎসা নিতে আসা ডেলিভারী রোগীদের অনেক সময় নরমাল ডেলিভারীতেই বাচ্চা হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে, কিন্তু অতি মুনাফার আশায় হাসপাতাল কতৃপক্ষ তাদের কে সিজার ছাড়া ডেলিভারী করানো যাবে না বলে । ফলে উপায়ন্ত না দেখে রোগীদের বাধ্য হয়ে সিজার করাতেই হয়।

 

আরো পড়ুন : কেরানীগঞ্জে শিশু নির্যাতিত

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

আমান উল্লাহ আমানের সুস্থতা কামনায় মসজিদে মসজিদে দোয়া

মোঃ মাসুদ করোনা আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মণ্ডলীর অন্যতম সদস্য, ডাকসুর সাবেক ভিপি ও সাবেক …

4 comments

  1. ব্যাবস্থা নেয়ার জন্য স্বাস্থ মন্ত্রণালয় কে নির্দেশ দেয়া হয়েছে,,,,

  2. There are many solutions to begin finding your true self, one ofthese is by connecting with ourselves
    physically through self-massage. As mentioned earlier, the BLS says how the therapeutic
    massage companies are projected to increase its number of practitioners by 19% approximately
    2018. This shiatsu massage chair provides you with all the most comprehensive massage example of the high-end
    loungers.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!