ছাত্র রাজনীতি , বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ পাঞ্জেরী কোনদিকে ?

বাংলাদেশের রাজনীতি চর্চার ইতিহাস মূলত ছাত্র রাজনীতি চর্চার ইতিহাস। একই আতুর ঘরে একই সময়ে বাঙ্গালীর রাজনীতি ও ছাত্র রাজনীতি চর্চার জন্ম। অতীত ঐতিয্যময় এই রাজনৈতিক ধারা বাংলাদেশ গড়ার কারিগর। কিন্তু নব্বই পরবর্তী সময় থেকে বর্তমান এই তিন দশকে বিভিন্ন সময়  ছাত্র রাজনীতি তাঁর অতীতকে কলঙ্কিত করেছে।

তাই আমাদের রক্ষণশীল সুধীজনেরা ছাত্র রাজনীতির প্রয়োজনীতা সম্পর্কে বলতে গিয়ে বলেন, ছাত্রদের রাজনীতি করার প্রয়োজন নেই।  কেউ কেউ আগ বাড়িয়ে বলেন ছাত্র রাজনীতি নাকি ছাত্রদের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের পথে অন্তরায়।


আমরা যদি ইতিহাসের দিকে দৃষ্টি দিই, তাহলে দেখতে পাবো, স্বাধীন বাংলাদেশ বিনির্মাণে ছাত্র রাজনীতির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।৫২ এর ভাষা আন্দোলন, ৫৪ এর যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন, ৬২ এর শিক্ষা আন্দোলন, ৬৬ এর ৬দফা, ৬৯ এর গণ অভ্যুত্থান, ৭০ এর সাধারণ নির্বাচন এবং ৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধে ছাত্র রাজনীতির প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ সমর্থন ও আত্মত্যাগের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রয়েছে।সংকটে, সম্ভাবনায় দেশ মাতৃকার প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামে ছাত্র রাজনীতির সরাসরি সম্পৃক্ততা এদেশের সকল নিবেদিত প্রাণ, মুক্তি পাগল বাঙালীর মনে প্রাণ সঞ্চারে ভূমিকা রেখেছে।


যুগে যুগে জীবনের মায়া উপেক্ষা করে বুলেটের সামনে অকুতোভয় বুক পেতে দেওয়া সাহসের নেপথ্যে রয়েছে ছাত্র রাজনীতি।সাধারন ছাত্র/ছাত্রীদের অধিকার আদায়ে যে কোনো রাষ্ট্র ব্যবস্থার চাপিয়ে দেওয়া অন্যায্য নিয়ম নীতির বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার নাম ছাত্র রাজনীতি।

আজকের সমাজ ব্যবস্থায় ছাত্র রাজনীতির নামে কিছু অছাত্র/দুবৃত্তায়ন শক্তি নিজ স্বার্থ চরিতার্থে ছাত্র রাজনীতির দুর্নাম করছে ঠিকই, কিন্তু এই গুটি কয়েক ধান্ধাবাজের অপকর্মের দায় বাংলার ছাত্র সমাজের উপর চাপিয়ে দিয়ে ছাত্র রাজনীতির শিকড় উৎপাটনে যারা মন্তব্য করেন, তারা মূলত ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টার প্রহর গুনছেন।

নব্বইয়ের স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে সফালতার অন্যতম দাবীদার ছাত্র রাজনীতি। তখনকার সৈরাচার সরকার চেষ্টা করেছিলো ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধি করতে। কিন্তু যুগে যুগে সফলতার ইতিহাস যারা রচনা করে তাদেরকে দাবিয়ে রাখা যায়না।ছাত্র রাজনীতি ছিলো, আছে থাকবে।


ছাত্র রাজনীতিতবে হ্যা পরিশুদ্ধতা, পরিমার্জনতা দরকার এই রাজনৈতিক সফলতার শেকড়ে।আরও বেশী দায়িত্বশীলতা, দেশ প্রেম আর প্রকৃত মেধাবী ছাত্রত্ব দিয়ে ছাত্র রাজনীতির সুষ্ঠ পরিবেশ তৈরী করতে পারলে, রাষ্ট্র তথা সমাজ ব্যবস্থায় আসবে গুনগত পরিবর্তন, সেই সাথে ভবিষ্যত রাজনীতির প্রেক্ষাপট এই ছাত্র রাজনীতির হাত ধরেই সমৃদ্ধশালী হবে।

আজকের ছাত্র আগামীর রাষ্ট্র ব্যবস্থার চালিকা শক্তি।ছাত্র রাজনীতির প্রয়োজনীতা তাই আবশ্যিক বলেই মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও সুধীজনেরা। হুট করে কোনো ধনাঢ্য ব্যাবসায়ীর রাজনীতিতে পদার্পন রাষ্ট্রের জন্যে শুভকর নয়।
রাজনীতিতে মেধা,মনন ও অভিজ্ঞতার যে সংমিশ্রন প্রয়োজন, তার জন্যে ছাত্র রাজনীতি সহায়ক ভূমিকা পালন করতে সক্ষম যুগের অন্যতম দাবী তাই ছাত্র রাজনীতির সুষ্ঠ চর্চা ও বিকাশের।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

লালপুরে মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর

নাটোরের লালপুরে শীতলা মন্দিরের প্রতিমার মাথা ও হাত ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। রবিবার দিবাগত রাতে উপজেলার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!