মুসলিমদের ‘কষ্ট বুঝতে পারছেন’ ম্যাঁখো

নবী মুহাম্মদ (স.) ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন ছাপানোয় মুসলিমদের কষ্টের অনুভূতি বুঝতে পারছেন বলে জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাখোঁ। বিষয়টি নিয়ে কিছুটা সহানুভূতির সুরে কথা বললেও জানিয়েছেন, যে ‘উগ্রবাদী ইসলাম’ এর বিরুদ্ধে তিনি লড়াইয়ের চেষ্টা চালাচ্ছেন সেটা সকল মানুষের জন্য ক্ষতিকর, বিশেষ করে মুসলমানদের জন্য।

আল-জাজিরাকে দেওয়া বিশেষ একটি সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেন ম্যাখোঁ। ফ্রান্সের ব্যঙ্গাত্মক ম্যাগাজিন শার্লি এবদোতে নবী মোহাম্মদ (স.) বিতর্কিত কার্টুন ছাপানোর জের ধরে ফ্রান্স সরকার ও মুসলিম বিশ্বের মধ্যে চলমান টানাপোড়েনের মধ্যে দেশটির প্রেসিডেন্টের এই মন্তব্য আসলো।

 

ম্যাঁখো বলেন, “তাদের যে অনুভূতি প্রকাশ পাচ্ছে তা আমি বুঝতে পারছি। এতে তাদের প্রতি আমি সম্মান জানাই। কিন্তু আপনাকে অবশ্যই আমার এই মুহূর্তের ভূমিকা বুঝতে হবে। এখানে দুটি করার সময় আছে: শান্তির বিষয়টা তুলে ধরা এবং এই অধিকারগুলোও রক্ষা করা। ”

“কথা বলার, লেখার, চিন্তার এবং আঁকার মতো মত প্রকাশের স্বাধীনতার ক্ষেত্রে আমি সব সময় আমার দেশকে সমর্থন দেব। ”

সেই সঙ্গে ম্যাঁখো জানিয়েছেন, তিনি যা বলছেন তা রাজনৈতিক নেতারা ‘বিকৃত’ করে উপস্থাপন করছে। জনসাধারণকে তারা বলছে, ব্যঙ্গচিত্র ফ্রান্স সরকারের সৃষ্টি।

এ ব্যাপারে ফরাসি প্রেসিডেন্ট বলেন, “আমি মনে করি, আমার কথা ভুল ও বিকৃত করে উপস্থাপনের জন্যই এই প্রতিক্রিয়া হচ্ছে। কেননা, মানুষ বুঝেছে যে, এসব কার্টুন আঁকায় আমি সমর্থন দিয়েছিলেন।

“এসব ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন সরকারের কোনো প্রজেক্ট না। এগুলো এসেছে মুক্ত ও স্বাধীন গণমাধ্যম থেকে, যেগুলোতে সরকারের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। ”

ফরাসি পত্রিকা শার্লি এবদোতে নবী মুহাম্মদ (স.) বিতর্কিত কার্টুন ছাপা নিয়ে গোটা বিশ্বজুড়ে মুসলমানদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্ট হয়েছে। সম্প্রতি এর জের ধরে ফ্রান্সে বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় বেশ কয়েকজন নিহতসহ অনেকে আহত হয়েছেন।

 

বিতর্কিত কার্টুন ছাপার জেরে ২০১৫ সালের ৭ জানুয়ারি প্যারিসে শার্লি এবদো কার্যালয়ে ঢুকে গুলি চালিয়ে ১২ জনকে হত্যা করে উগ্র ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

টুইটারে ‘বিশেষ সুবিধাও’ হারাচ্ছেন ট্রাম্প

নির্বাচনে হারলে জানুয়ারিতে শুধু প্রেসিডেন্টের পদ নয়, টুইটারের বিশেষ সুবিধাও হারাতে হতে পারে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। …

error: Content is protected !!