ইস্ট ওয়েস্টে ইউনিভার্সিটিতে পাবলিক রিলেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি বিজনেস ক্লাব প্রতি সেমিস্টারের নতুন নতুন কিছু প্রোগ্রামের অায়োজন করে ছাত্রছাত্রীদের নতুন কিছুর সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে।তারই ধারাবাহিকতায় এবার আয়োজন করা হয়েছে 100 মিনিট বুস্টআপ প্রোগ্রাম।

এটি ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি বিজনেস ক্লাবের অন্যতম একটি প্রোগ্রাম যা প্রতি সেমিস্টরেই অায়োজন করা হয়,যার উদ্দেশ্য বিভিন্ন স্কিল ডেভেলপমেন্ট। এবার প্রোগ্রামটির থিম হচ্ছে “পাবলিক রিলেশন ফর (পিআর) স্টার্টআপস।“

<script async src=”//pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js”></script>
<!– number 1 –>
<ins class=”adsbygoogle”
style=”display:inline-block;width:300px;height:600px”
data-ad-client=”ca-pub-3593848879504226″
data-ad-slot=”6926492001″></ins>
<script>
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
</script>

বর্তমান দ্রুততম ক্রমবর্ধমান বিশ্বে কোন লক্ষ্য অর্জনের জন্য পাবলিক রিলেশন ডেভেলপমেন্টর কোনো বিকল্প নেই। কোন ব্যবসা, মানুষ,দেশ এবং তাদের কালচার সম্পর্কে জানার একটি চমৎকার অস্ত্র হল পাবলিক রিলেশন ।

“পাবলিক রিলেশন ফর (পিআর) স্টার্টআপস“ সেশনটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল মঙ্গলবার ৯ই নভেম্বর, ২০১৭ তারিখে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির অডিটোরিয়ামে। সেশনটি পরিচালিত হবে সৈয়দ রবিউস শামস যিনি একই সাথে একজন উদ্যোক্তা, সাংবাদিক, সিইও, রায়ডিয়া ইনকর্পোরেটেড এবং শেখ মোহাম্মদ ইউসুফ হোসেন ,প্রতিষ্ঠাতা এবং রাষ্ট্রপতি যুব স্কুলে সোশাল উদ্যোক্তা (YSSE)। সায়েদ রবিউস শামস,বলেছেন, “পাবলিক এফেয়ার ব্র্যান্ড প্রচারের সবচেয়ে ব্যয়বহুল উপাদানগুলির মাঝে একটি।“ এছাড়াও সানসেই বাংলাদেশের দেশ পরিচালনা পরিচালক, একটি আন্তর্জাতিক ব্যবস্থাপনা প্রশিক্ষন ও পরামর্শ সংস্থা, বলেছেন, “পাবলিক রিলেশন স্টার্টআপ সাধারণত ‘ফ্রি বিজ্ঞাপন হিসেবে ব্যবহার করা হয় যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। শ্রোতাদের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে এবং তাদের প্রয়োজনগুলো বুঝতে চেষ্টা করে

“ পাবলিক রিলেশন এর এসকল গুরূত্বের কথা চিন্তা করে ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির সকল শিক্ষার্থীদের জন্য বিজনেজ ক্লাব এই আয়োজনের ব্যবস্থা করেছিলো। প্রোগ্রামটিতে বিশিষ্ট তরুণ উদ্যোক্তা এবং জনসাধারণ যোগাযোগ কৌশলবিদ তাদের বক্তব্য প্রদান করেছিলো। আমাদের গেস্ট স্পিকাররা পাবলিক রিলেশন সম্পর্কিত বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন যাতে করে শিক্ষার্থীরা এই বিষয়ে একটি সুষ্ঠ ধারণা পায় এবং এটি তাদের ভবিষ্যৎ এ সহযোগীতা করে।

ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি বিজনেজ ক্লাব হল প্রথম ক্লাব যারা নেতৃত্ব বিকাশ এবং উদ্যোগী শিক্ষার্থীদের নতুন কিছু শিখার সুযোগ প্রদানে নিরন্তর প্রচেষ্টা করে। ক্লাবটি সৃজনশীলতা, টিমওয়ার্ক,লিডারশীপ এবং আরো বেশ কিছু সেক্টরে নিজেদের ডেভেলপ করার জন্য শিক্ষার্থীদের সুযোগ সৃষ্টি করছে। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন কর্মশালায় কাজে লাগানোর জন্য বিজনেজ ক্লাব অনেক অনুষ্ঠান, সেমিনার ও প্রতিযোগিতার আয়োজন করে । তারই সূত্রাধারে এবারের এই “পাবলিক রিলেশন স্টার্টআপ থিমের উপর ১০০ মিনিট বুস্ট আপ সেশনের আয়োজন করা হয়েছিল।

ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি তার প্রশংসনীয় শিক্ষা ব্যবস্থা এবং প্রতিভাশালী শিক্ষার্থীদের মর্যাদা রাখে। 100 মিনিট বুস্ট আপ প্রোগ্রাম দ্বারা, এই একজন শিক্ষার্থী তাদের স্বপ্ন পূরণের অনুপ্রেরণা পাবে, সাথে নিজেকে করে তুলতে পারবে আরো দক্ষ। ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি বিজনেজ ক্লাব হল ইস্ট ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটির এই ধরণের গঠন এবং দক্ষতা অনুষ্ঠান আয়োজনের মূল প্রেরণা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

বাবা হারালেন সাংবাদিক রাসেল

অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমের নিজস্ব প্রতিবেদক ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সদস্য ইসমাইল হোসাইন রাসেলের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!