দুর্গাপূজার মহাসপ্তমীতে করোনা থেকে মুক্তির প্রার্থনা

শুরু হলো শারদীয় দুর্গা পূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা। আজ শুক্রবার মহাসপ্তমী। গতকাল বৃহষ্পতিবার ষষ্ঠীতে সকালে বিল্ল বৃক্ষ অর্থাৎ বেলগাছতলে দেবীর আবাহন, সংকল্প সহযোগে ‘ত্রিণয়নি’ দুর্গা দেবীর পূজার্চ্চনা আমন্ত্রণ ও সন্ধ্যায় অধিবাস অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল থেকে রাজধানীসহ সারাদেশের ম-পগুলোতে ঢাকের বোল, চন্ডী ও মন্ত্রপাঠ, কাঁসর ঘন্টা, শঙ্খ আর উলুধ্বনিতে মুখর হয়ে উঠে।

আজ মহাসপ্তমীর দিনে প্রত্যুষে নবপত্রিকা প্রবেশ ও ঢাক-ঢোল কাঁসর বাজিয়ে দেবী দুর্গার তিথিবিহীত পূজা শেষে সপ্তমীবিহিত পূজা অনুষ্ঠিত হবে। শাস্ত্রমতে মহাসপ্তমীতে ষোড়শ উপাচার (ষোল উপাদান) দিয়ে পূজার্চ্চনা হবে। দেবীকে আসন, বস্ত্র, নৈবেদ্য, পুষ্পমাল্য ও চন্দন দিয়ে পূজা করা হবে। পূজার্চ্চনা শেষে কৃপালাভের আশায় দেবীর চরণে পুষ্পাঞ্জলী দেবেন ভক্তরা।

আগামীকাল শনিবার হবে মহাষ্টমী। এরপর রবিবার মহানবমী ও সোমবার বিজয়া দশমীতে প্রতিমা নিরঞ্জনের মাধ্যমে পাঁচদিনব্যাপি পূজার আনুষ্ঠানিকতা শেষ হবে।

এদিকে কোভিড-১৯ মহামারি পরিস্থিতির কারণে এবার দুর্গোৎসবের আয়োজন হচ্ছে সীমিত আকারে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে স্বাত্ত্বিক আচারের মাধ্যমে এবার পূজা হচ্ছে।

করোনা মহামারি থেকে মুক্তিলাভের প্রত্যাশা ও বিশ্ব শান্তি কামনায় আজ সারাদেশের সকল পূজামন্ডপে দুপুর ১২টা ১ মিনিটে বিশেষ প্রার্থনা হবে বলে জানান বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা।

কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের প্রেক্ষিতে এবারের দুর্গাপূজা উদযাপনে আলোকসজ্জা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আরতি, প্রসাদ বিতরণ, মহাষ্টমীর দিনে অন্যতম আকর্ষণ কুমারী পূজা ও বিজয়া দশমীর শোভাযাত্রার আয়োজন থেকে বিরত থাকাসহ সন্ধ্যা আরতির পর পূজামন্ডপে জনসমাগম না করার নির্দেশনা রয়েছে। এ বছর মোট ৩০ হাজার ২৩১ টি পূজা অনুষ্ঠিত হবে। গত বারের চাইতে এবার ১ হাজার ১৮৫ টি পূজা কম হচ্ছে। ঢাকা মহানগরে এবার ২৩৩ টি মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নির্মল কুমার চ্যাটার্জি দেশ রূপান্তরকে বলেন, করোনা অতিমারীর কারণে এবার দুর্গোৎসব শুধুই ‘দুর্গা পূজা’র মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে। জনসমাগম হয় এমন কোনো অনুষ্ঠান এবার হচ্ছে না। পূজার প্রতিটি দিনে সন্ধ্যা আরতির পর মন্ডপগুলোতে জনসমাগম না করার নির্দেশনা রয়েছে। করোনার মহামারি থেকে মুক্তির প্রত্যাশায় মহাসপ্তমীতে সারাদেশের সকল পূজামন্ডপে বিশেষ প্রার্থনা হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ঘাস চাষ শিখতে বিদেশ যাবেন ৩২ কর্মকর্তা

ঘাসের চাষ শিখতে এবার বিদেশ যাবেন ৩২ কর্মকর্তা। প্রত্যেকের পেছনে ব্যয় হবে ১০ লাখ টাকা …

error: Content is protected !!