সেমিস্টার ফী মওকুফসহ প্রশাসনের সকল আশ্বাস দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি

জবি প্রতিনিধিঃজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের চলমান সেমিস্টার ফি মওকুফের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, জবি শাখা।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান মিশু স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে সংগঠনের পক্ষ থেকে এই দাবি জানান তারা।

বিবৃতিতে বলেন, সাম্প্রতিক করোনা সংকট মোকাবিলায় অর্থনীতি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে৷ খুবই দুঃখজনকভাবে এরই মাঝে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ থেকে নতুন সেমিস্টারে ভর্তির নোটিশ দেয়া হচ্ছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এই সংকট মূহুর্তে শিক্ষার্থীদের পক্ষে এই বাড়তি ব্যয় বহন করা প্রায় অসম্ভব। তাই বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার পক্ষ থেকে চলমান সেমিষ্টারের ভর্তি ফি মওকুফের দাবি জানাচ্ছি।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক শিক্ষার্থীদের দেয়া নানান আশ্বাসের কথা তুলে ধরে বলেন, বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা শুরু থেকেই সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে অধিকার আদায়ে সোচ্চার। করোনার এই মহামারীতে শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক যেসব দাবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কর্তৃক পূরণের আশ্বাস দেয়া হয়েছে কিন্তু এখনো বাস্তবায়নের মুখ দেখেনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়া প্রতিশ্রুতি গুলোর মধ্যে, ‘ইন্সট্রুমেন্টাল এক্সেস এ্যাওয়ার্ড’ পাওয়ার পর দুইটা পিসিআর মেশিন স্থাপন ও গত জুলাই মাস হতে করোনা ভাইরাস টেস্ট করার, নতুন অত্যাধুনিক মেডিকেল সেন্টারের কাজ গত সেপ্টেম্বর এর মাঝে শেষ করে শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা, বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের আগেই স্বল্পমূল্যে ৩০ জিবি ইন্টারনেট ডাটা ও প্রাতিষ্ঠানিক ইমেইল দেয়া, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহ করে শিক্ষাবৃত্তি দেয়া, বাংলা বর্ষবরণ ও মুজিববর্ষ পালনে বেঁচে যাওয়া টাকা করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষার্থীদের উন্নয়নে খরচ করা, ইউজিসির নির্দেশনায় অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের ডিভাইস কেনার সফট লোন দেয়ার কথা উল্লেখ করে তা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আবলোকন করেছে, কিভাবে করোনা সংকটকে পূঁজি করে একের পর এক আশ্বাস দিয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে এই প্রশাসন প্রতারণা করেছে। বারবার এমন প্রতারণা শিক্ষার্থীরা মেনে নিবে না। উল্লেখিত দাবিসমূহ বাস্তবায়ন না হলে অতীতের ন্যায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নেতাকর্মীরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের ন্যায্য পাওনা বুঝে নিবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

রাজশাহী কলেজে চাকরির বাজার নিয়ে অনলাইন কর্মশালা 

বেলাল হোসেনঃ রাজশাহী কলেজ বিজনেস ক্লাবের (আরসিবিসি) আয়োজনে অনলাইন সেশন “কিউ&এঃ কর্পোরেট কিউরিওসিটি” অনুষ্ঠিত হয়েছে। …

error: Content is protected !!