সুস্বাস্থ্যের জন্য কতটুকু ঘুম আমাদের জন্য জরুরী

সুস্বাস্থ্যের জন্য কতটুকু ঘুম আমাদের জন্য জরুরী

পৃথিবী জুড়ে বিভিন্ন চালানো গবেষণায় তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে, কারা বেশি রোগাক্রান্ত হয়। যারা কম ঘুম কিংবা যারা বেশি ঘুমায় তারা নানা রোগে আক্রান্ত হয় এবং কম বাঁচে।

কম ঘুমানোর কারণে তারা রোগাক্রান্ত হচ্ছে কি না সেটি বলা বেশ কঠিন। এখানে যারা রাতে ছয় ঘণ্টার কম ঘুমায় কম ঘুমানো মানুষ বলতে তাদেরকে বোঝানো হয়েছে। অন্যদিকে যারা নয় কিংবা ১০ ঘণ্টার বেশি ঘুমায় ,বেশি ঘুমানো মানুষ বলতে তাদের বোঝানো হয়েছে ।

প্রতি রাতে ১১ ঘণ্টা ঘুমানোর জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে বয়:সন্ধিকালের আগ পর্যন্ত। আর প্রতিদিন ১৮ ঘণ্টা ঘুমানোর প্রয়োজন নবজাতক শিশুদের জন্য। । যাদের বয়স ১৩ থেকে ১৯ বছর তাদের প্রতিরাতে ১০ ঘণ্টা ঘুমানো উচিত।

ডাবলিনের ট্রিনিটি কলেজের মস্তিষ্ক বিষয়ক গবেষক শেন ও’মারা বলেন, স্বাস্হ্য শুধু কম ঘুমের কারনেই খারাপ হয় কিনা তা বলা কঠিন। তবে একটার সাথে আরেকটার সম্পর্ক রয়েছে।

উদাহরন স্বরূপ বলা যায়, যারা কম ব্যায়াম করে তারা কম শারীরিকভাবে কম ফিট থাকে।  যার কারনে বেশি ঘুম পায় এবং নিজেকে ক্লান্ত মনে হয়। আবার ক্লান্ত থাকার কারণে ব্যায়াম করা কমে যায়।

অনেক মানুষ আছেন যারা সাংঘাতিক ভাবে ঘুম বঞ্চিত। রাতে তাদের এক-দুই ঘণ্টার বেশি ঘুম হয় না। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এর কারণে স্বাস্থ্য খারাপ হয়ে যায়।

ঘুম কম হবার কারণে শারীরিকভাবে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। পৃথিবীজুড়ে ১৫৩টি গবেষণা পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, কম ঘুমের কারণে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ এবং মোটা হয়ে যাবার সম্পর্ক আছে। প্রায় ৫০লাখ মানুষের উপর এসব গবেষণা চালানো হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, একটানা কয়েক রাত যদি ঘুম কম হয় তাহলে সেটি ডায়াবেটিসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যেতে পারে। এ ধরনের নিদ্রাহীনতা রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে শরীরের কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়।

ঘুমকম হবার কারনে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং টিকার কার্যকারিতা কমে যায়। একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ঘুম হলে খাবারের চাহিদা তৈরি হয় এবং ক্ষুধার তীব্রতা বাড়ে এতে বেশি খাবারের চাহিদা তৈরি হয়। ফলে মোটা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

কম ঘুমানোর কারনে আবার মস্তিস্কের কার্যক্ষমতা কমে যায় এবং এর ফলে দীর্ঘমেয়াদী স্মৃতি বিভ্রম তৈরি হতে পারে।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ও’মারা বলেন, দিনের বেলায় মস্তিকের ভেতরে নানা ধরনের জিনিস তৈরি হয় এবং রাতে ঘুমের মাধ্যমে সেগুলো অপসারণ হয়ে যায়। এ কারণে মস্তিষ্ক দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে পড়ে।

তবে অতিরিক্ত ঘুমের কারনে  শরীরের উপর কী ধরনের প্রভাব পড়ে সেটি পুরোপুরি বোঝা যাচ্ছে না।

 

আরো পড়ুন : ধোলাইখালের অবস্থা

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

বেড়েছে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদনের সময়সীমা

  অপূর্ব চৌধুরী: গুচ্ছভুক্ত ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদনের সময়সীমা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত …

2 comments

  1. Good post. I learn something new and challenging on sites I stumbleupon everyday.

    It will always be useful to read articles from other authors and use a little something from their web sites.

  2. This is a topic that’s near to my heart…
    Thank you! Where are your contact details though?
    adreamoftrains best web hosting company

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!