বাফুফে নির্বাচন ঘিরে যত প্রত্যাশা

 

কেউ চাইছেন পরিবর্তন, কেউ বলছেন গুরুত্ব দিতে হবে মাঠের খেলায়, র‌্যাংকিংয়ে আনতে হবে উন্নতি। জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের আনতে হবে বেতন কাঠামোর মধ্যে। তবে সবার প্রত্যাশা একটাই আর তা হলো, নির্বাচন হোক সুষ্ঠ, আসুক যোগ্য লোক। যাদের হাত ধরে এগিয়ে যাবে বাংলার ফুটবল।

১৩৯ ডেলিগেট ২১টি পদ আর ৪৭ প্রার্থী। সম্মিলিত নাকি সমন্বয় পরিষদ? আগামী ৪ বছরের জন্য কাদের কাঁধে উঠছে বাংলার ফুটবলের দায়িত্ব?
নির্বাচনের আগে কথার ফুলঝুরি ফোটায় সবাই। পরে আর তার দেখা যায় না বাস্তবায়ন। সাবেকদের শঙ্কাটাও ঠিক সেখানেই। কাজী সালাউদ্দিন যেখানে তিন যুগে করতে পারেননি অনেক কিছুই, সেখানে আরেক দফায়’ কেন আবার? তাইতো অনেকেই চাইছেন, দিচ্ছেন পরিবর্তনের ডাক। আছে সুষ্ঠ নির্বাচন নিয়ে শঙ্কাও।

সাবেক ফুটবলার কায়সার হামিদ বলেন, আমরা ফুটবলের উন্নয়ন চাই। নতুন কেউ আসুক। সালাউদ্দিন ভাই দীর্ঘ ১২ বছর দেখাশোনা করেছেন। কিন্তু ফুটবলের বিশ্ব র‌্যাংকিং এখন ১৯০-এর কোটায় ঘোরাঘুরি করে।
তবে ওসব মারপ্যাঁচে যেতে নারাজ বর্তমান ফুটবলাররা। বিপরীতে তাদের দাবি, আরও বাড়ানো হোক সুযোগ সুবিধা, যিনিই নির্বাচিত হোন না কেন, কাজ করুক ফুটবলের উন্নয়নে।

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সহ-অধিনায়ক আশরাফুল ইসলাম রানা বলেন, আমার আশা থাকবে যারাই আসুক তারা যেন লিগগুলো ভালোভাবে আয়োজন করে। জাতীয় দলের ফুটবলারদের জন্য একটা বেতন কাঠামো করে এবং দেশের ফুটবলের উন্নয়নের জন্য কাজ করে।
সঙ্গে আরও একটা প্রত্যাশার ব্যাপারে একমত সাবেক ও বর্তমানরা। আর যোগ্য লোকই বসুক দেশের ফুটবলের মসনদে। যাতে ভর করে আর পেছনে তাকানো নয়, সামনে তরতর করে এগিয়ে যাবে লাল সবুজের ফুটবল।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কী তাহার নাম, কী পরিচয়?

  আইপিএলে প্রথমবারের মতো এক ম্যাচে দুটি সুপার ওভার হয়েছে রোববার। মাঠের মধ্যে যখন লোকেশ …

error: Content is protected !!