আরো ফিক্সিংয়ের খবর আছে: পাপন

 

‘ম্যাচ ফিক্সিংয়ের খবর খুব শিগগির আসবে। ওগুলো আসতেছে। ’- গত বছর ক্রিকেটাররা ধর্মঘটের ডাক দেওয়ার পরদিন সংবাদ সম্মেলনে এভাবেই বলেছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এই ফিক্সিংয়ের ঘটনা বলতে আসলে কি ইঙ্গিত করেছিলেন বোর্ড সভাপতি?

গত এক বছর এ নিয়ে অনেক চর্চা হয়েছে।

তবে কখনোই কিছু বলেননি পাপন। সম্প্রতি ইউটিউব চ্যানেল ‘নট আউট নোমান’ কে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে মুখ খুলেছেন বিসিবি বস। তার কথায় উঠে এসেছে বিস্ময়কর তথ্য।
গত বছর অক্টোবরে ক্রিকেটারদের সেই আন্দোলনের ক’দিন পরই আইসিসির নিষেধাজ্ঞা পান সাকিব আল হাসান। ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও তা গোপন করায় এক বছর নিষিদ্ধ হন এই অলরাউন্ডার।

বোর্ডের বিরুদ্ধে ক্রিকেটারদের বিদ্রোহে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন সাকিব। এর ক’দিন পরই তিনি নিষেধাজ্ঞা পান বলে অনেকের ধারণা, সাকিবের নিষেধাজ্ঞার পেছনে হাত রয়েছে বিসিবির বা বিসিবি সভাপতির। সাকিবের ওপর ক্ষোভ থেকেই এমনটা করিয়েছেন তিনি, এমনও বলেন কেউ কেউ।

আবার বোর্ড বরাবরই বলে এসেছে সাকিবের নিষেধাজ্ঞার খবর আগে থেকে কেউই জানত না।

বোর্ডও জানতে পারেনি। কিন্তু নাজমুল হাসান জানতেন বলেই ‘ম্যাচ ফিক্সিংয়ের খবর খুব শিগগির আসবে’ বলেছিলেন, এমনও মনে করেন অনেকে।
তবে নাজমুল হাসান পাপন স্পষ্ট করেই বলেছেন, ‘সাকিবের নিষেধাজ্ঞার সঙ্গে এটার কোনো সম্পর্ক নেই। ’

‘ম্যাচ ফিক্সিংয়ের খবর খুব শিগগির আসবে’ কথাটির ব্যাখ্যায় বলেন, ‘ফিক্সিংয়ের খবর আছে। ওগুলো এখন বন্ধ হয়ে গেছে। বন্ধ করে দিয়েছি। সত্যি কথা বলি, আমরা কিছু তদন্ত করছিলাম। ওই সবের (ক্রিকেটারদের আন্দোলন) পর বন্ধ করে দিয়েছি সত্যি কথা। এগুলো নিয়ে আর কথা বলতে চাই না। ’

নিষেধাজ্ঞার কথা সাকিব বোর্ডকে আগে কখনোই জানায়নি উল্লেখ করে নাজমুল হাসান পাপন আরো বলেন, ‘এই জিনিসটা ও কেন জানায়নি আমি জানি না। শুধু তাই না, পরে আমি শুনতে পারলাম শুধু ও না, আরো তিনজনের ইন্টারভিউ করে গেছে আকসু। বাংলাদেশে এসে। ওই তিনজনও এখনো আমাকে বলেনি। ’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কী তাহার নাম, কী পরিচয়?

  আইপিএলে প্রথমবারের মতো এক ম্যাচে দুটি সুপার ওভার হয়েছে রোববার। মাঠের মধ্যে যখন লোকেশ …

error: Content is protected !!