জেনে রাখুন স্বাস্থ্য ভালো রাখতে করণীয় কি কি

 

আজকের যুগে সকলেই স্লিম থাকতে ভালবাসে। সকলেই ওজন কম রাখার জন্য বিভিন্ন ধরণের ডায়েট মেনে চলে। কিন্তু,যারা অনেক বেশি স্লিম, অর্থাৎ স্বাভাবিকের তুলনায় ওজন কম তাদের স্বাস্থ্যবান হবার ইচ্ছা জাগে।

এছাড়াও কম ওজনের ফলে বিভিন্ন ধরণের রোগ যেমন-অ্যানিমিয়া, দুর্বলতা ইত্যাদি হতে পারে। আপনার শারীরিক পরিবর্তন ও সুস্বাস্হ্যর জন্য কিছু সুপার ফুড এর নাম দেয়া হল, যা শরীরের ওজন বাড়ানোর জন্য সাহায্য করবে।

ওজন বাড়ানোর জন্য ৭টি খাবার:-
১. মিষ্টি: সকল ধরণের মিষ্টি জাতীয় খাবার শরীরের ওজন বৃদ্ধির জন্য সাহায্য করে। ডার্ক চকলেট ও কেকে প্রচুর পরিমাণে ক্যালোরি রয়েছে।যারা ওজন বাড়ানোর জন্য আগ্রহী তাদের জন্য এ সকল খাবার অনেক উপকারী। অনেকেই মিষ্টি জাতীয় খাবার অনেক পছন্দ করে। এসব খাদ্যে চিনি, দুগ্ধজাত খাবার ও মিষ্টি জাতীয় অনেক খাবার দেয়া হয়। যার ফলে খুব তাড়াতাড়ি ওজন বৃদ্ধি পায়।

২. বাদাম: চীনাবাদাম, কাজুবাদাম, আখরোট, হিজলি ইত্যাদি বাদাম সমূহে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি উপাদান যেমন- চর্বি, তন্তু, ভিটামিন ও খনিজ লবণ ইত্যাদি রয়েছে। এ সকল উপাদান সুস্থ হার্টের জন্য অপরিহার্য। এর সাথে সাথে এ সকল খাবার গ্রহণের ফলে শরীরের ওজন খুব দ্রুত বৃদ্ধি পায়। বাদামে প্রাকৃতিক তেল রয়েছে, যা ওজন বৃদ্ধির জন্য সহায়ক।

৩. গোটা শস্য: গোটা শস্যে বাদামী চাল, সিরিয়াল, গম ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত থাকে। বাদামী বা সাদা ভাত জটিল শর্করার একটি ভাল উৎস।অন্যদিকে সিরিয়াল একটি উচ্চ ক্যালোরির খাদ্য। সিরিয়াল সকালে নাস্তার সাথে খাওয়া ভাল। এগুলো শরীরের ওজন বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

৪. ডেইরি ফ্যাট: ডেইরি ফ্যাট যেমন- দুধ ও পনির। এতে প্রচুরপরিমাণে ক্যালসিয়াম, প্রোটিন ও ফ্যাট রয়েছে। এগুলো প্রাকৃতিকভাবে পেশী শক্তিশালী করে এবং ওজন বৃদ্ধি করে।

৫. মাখন: প্রতি ৫ গ্রাম নিমকি মাখনে ৩৬ ক্যালোরি রয়েছে। এই স্যাচুরেটেড ফ্যাট যারা ওজন বৃদ্ধি করতে চান তাদের জন্য অনেক ভাল।মাখনের ক্ষেত্রে বাদামের মাখন অনেক বেশি উপকারী। এতে ক্যালোরি, খনিজ পদার্থ ও ভিটামিন বিদ্যামান। যা ওজন খুবদ্রুত বৃদ্ধি করে।

৬. পশু ফ্যাট: সাদা ও লাল মাংসে প্রচুর পরিমাণে চর্বি,প্রোটিন ও কার্বো-হাইড্রেড রয়েছে। গরুর মাংস ক্যালোরি ও চর্বিতে সমৃদ্ধ। মাংসপেশী শক্তিশালী করতে ও শরীরের ওজন বৃদ্ধিতে মাংসের উপকারিতা অনেক।

৭. কলা ও ডিম: কলা একটি সেরা ফল তাদের জন্য যারা ওজন বৃদ্ধি করতে চান। একটি বড় আকারের কলাতে১২০ ক্যালোরি থাকে। এছাড়াও এতে চর্বি ও পটাশিয়ামের পরিমাণ বেশি যা ওজন বৃদ্ধি করে। দিনের শুরু ডিম খেয়ে করতে পারেন। কারন, এতে খনিজ, ফ্যাট ও প্রোটিনেরপরিমাণ অনেক বেশি। এটি আপনার সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী এবং আপনার মস্তিষ্কের উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

এই ৭টি খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন। খুব শীঘ্রই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে। পরিশেষে বলতে চাই ‘গাছ আমাদের প্রাকৃতিক বন্ধু, বেশি করে ঔষধি গাছ রোপন করুন – সুস্হ্য সুন্দর জীবন গড়ুন।
সকলের সুস্বাস্হ্য ও দীর্ঘায়ু কামনায়,
হাকীম মোঃ এস,এম,শামীম
ইউনানী জেনারেল ফিজিশিয়ান রেজিস্টার্ড চিকিৎসক।
প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক
চিকিৎসক ও ব্যবস্থাপক স্বদেশ হারবাল মেডিকেল।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

গরমে প্রাকৃতিক উপায়ে ঘর ঠান্ডা রাখার উপায়

গরম বাড়ছে। বাড়িতে বা অফিসে সারাক্ষণ এসি চালিয়ে রাখায় গরম অনুভূতি হয়তো কমছে, কিন্তু সঙ্গে …

error: Content is protected !!