অশ্রুভেজা চোখে বার্সা ছাড়লেন সুয়ারেস

অবশেষে প্রিয় ক্লাব বার্সেলোনা ছেড়েছেন লুইস সুয়ারেস। আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই হয়তো এই তারকা ফরোয়ার্ডের সঙ্গে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের নতুন চুক্তির খবর পাওয়া যাবে।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) কাতালান জায়ান্টদের অনুশীলন কমপ্লেক্সে গিয়েছিলেন সুয়ারেস। আর সেখান থেকেই সতীর্থ ও কর্মকর্তাদের কাছে বিদায় নেন এই উরুগুয়ের আক্রমণভাগের ফুটবলার।

তবে চলে যাওয়ার সময় এক আবেঘন পরিবেশ তৈরি হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, যাওয়ার সময় সুয়ারেস তার চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি।

২০১৪ সালের বিশ্বকাপের পরই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দল লিভারপুল থেকে বার্সায় পাড়ি দেন সুয়ারেস। দলটির হয়ে এখন সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২৮৩ ম্যাচে ১৯৮টি গোল করেছেন তিনি।

যা কিনা তাকে বার্সার ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলতাদা বানিয়েছে। লা লিগা, চ্যাম্পিয়নস লিগ, কোপা দেল রে, ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপসহ অসংখ শিরোপা জিতেছেন তিনি।

এর আগে সুয়ারেস-বার্সা বিচ্ছেদ নাটকে নতুন মোড় নেয়। আগের অবস্থান থেকে এবার ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে দাঁড়িয়েছেন বার্সা প্রেসিডেন্ট হোসে মারিয়া বার্তোমেউ। ফলে বিনা ট্রান্সফার ফি’তেই অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদে যেতে উরুগুইয়ান স্ট্রাইকারের আর কোনো বাধা রইলো না।

সুয়ারেসের আইনজীবীদের সঙ্গে ট্রান্সফার নিয়ে মঙ্গলবার দীর্ঘ বৈঠক শেষে সিদ্ধান্ত পাল্টেছেন বার্তোমেউ। দুই পক্ষের আলোচনা শেষে সুয়ারেসের অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদে যাওয়ার ক্ষেত্রে যে বাধা ছিল তা তুলে নিতে রাজি হয়েছেন বার্সা প্রেসিডেন্ট।

এর আগে সমঝোতার ভিত্তিতে সুয়ারেসের সঙ্গে বর্তমান চুক্তি বাতিল করে দেয় বার্সা। চুক্তিতে থাকা এক বছরের বেতন-ভাতার দাবিও ছাড়তে হয় সুয়ারেসকে। কিন্তু তাকে কিছুতেই ফ্রি ট্রান্সফারে অ্যাতলেটিকোয় যেতে দিতে রাজি ছিলেন না বার্তোমেউ। কারণ লা লিগার অন্যতম শীর্ষ প্রতিদ্বন্দ্বীদের শক্তিবৃদ্ধির ভয়! অথচ দুই পক্ষের মধ্যে আগেই চুক্তি বাতিল হয়ে গেছে।

অবশেষে পরিস্থিতি সামাল দিতে বোর্ডের সঙ্গে বৈঠকে বসেন সুয়ারেসের আইনজীবীরা। এখন তার জন্য অ্যাতলেটিকোর ঘরে যেতে আর কোনো বাধা নেই। এমনকি বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) যেকোনো সময় দিয়েগো সিমিওনের শিষ্য হিসেবে যোগ দিতে পারেন তিনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কী তাহার নাম, কী পরিচয়?

  আইপিএলে প্রথমবারের মতো এক ম্যাচে দুটি সুপার ওভার হয়েছে রোববার। মাঠের মধ্যে যখন লোকেশ …

error: Content is protected !!