মাথায় ডিম ভেঙে এ কেমন জন্মদিন উদযাপন!

 

তাসনীমুল হাসান মুবিন, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রতিটি মানুষের কাছে জন্মদিন একটা বিশেষ দিন। একজন মানুষ দশ মাস দশ দিন মাতৃগর্ভে থাকার পর পৃথিবীর আলো দেখতে পায়। এজন্য সৃষ্টিকর্তার পর মা-বাবার কাছে সন্তানের ঋণের শেষ নেই।

আর তাই এই দিনটি প্রতি বছর ভিন্নভাবে
পালন করে মানুষ। মানুষের দোয়া আর শুভ কামনা কুঁড়িয়ে নতুন একটা বছর শুরু হয়।

যদিও পরিবার কখনো আমার জন্মদিন পালন করে’নি। সেটা নিয়ে কখনো তাদের প্রতি আমার ক্ষোভ বা অভিযোগ কিছুই নেই। অভাব অনটনের সংসারে তারা কি করবে। তাদের জন্য এই পৃথিবীর সুন্দর আলো দেখতে পাচ্ছি সেটাই কম কিসে।
আমি তাদের কাছে ঋণী আর এই ঋণ
কখনো শোধ হবে না। শুধু বলব ভালবাসি
মা-বাবা তোমাদের।

নিজের জন্মদিনের অনুষ্ঠান না হলেও
ছোট বেলা থেকে অন্যের জন্মদিনের অনুষ্ঠান দেখেছি। জন্মদিনের আগেই দাওয়াত পৌঁছে যেত আত্নীয় স্বজনের বাড়ী। দিনটি উপলক্ষে বাড়ী ঘর ভালোভাবে সাজানো হত। থাকত ভুড়ি
ভোজের বিশাল আয়োজন। ছোট ছেলে মেয়েদের হই হুল্লোড়ে মুখরিত হয়ে ওঠত বাড়ীর আঙ্গিনা। রাতে সবাই একসাথে কেক কেটে তারপর শুরু হত নিজেদের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আহা সেই দিন গুলো কত মধুর ছিল!

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে জন্মদিনে এসেছে ভিন্নতা। পারিবারিক ওই রকম আয়োজন তেমন একটা চোখে পড়ে না।

তবে এখন রেস্টুরেন্ট কিংবা রিসোর্ট গিয়ে ওই রকম আয়োজন হয়৷ এখন কেবল বন্ধু বান্ধবের সাথেই চলে ঘন্টা খানেকের জন্মদিন উদযাপন। সেখানেও নেই আগের মত সুস্থ বিনোদন।

একদিন কোচিং শেষ করে বাড়ী ফেরার পথে দেখি। একজন স্কুল ছাত্রকে বেশ কজন ছাত্র মিলে ধরে বেঁধে নিরিবিলি গলীতে নিচ্ছে। ভাবলাম ছেলেটি নিশ্চয়ই কিছু করছে এইজন্য অনেকে মিলে পিটানোর জন্য নিয়ে যাচ্ছে। তাই আমি ওদের পিছু নিলাম। মাঝ পথে গিয়ে দেখি ওই ছেলেটিকে গাছের সাথে বেঁধে তার মাথায় ডিম ভাঙ্গা হচ্ছে আর আরেকজন মাথায় আটা দিয়ে দিল। আরেকটা ছেলে লাল রং মেশানো পানি দিল। তখনো আমার কাছে অজানা এখানে হচ্ছেটা কি ?

পরে জানতে পারলাম যার জন্মদিন তার
মাথায় ডিম ভেঙে আটা ঢেলে তাকে নাকি কেক বানানো হচ্ছে। ব্যাপারটা অমানবিক
হলেও শিক্ষার্থীগুলো উপভোগ করছে।

মানুষকে কষ্ট দেওয়ার মাঝে কোন আনন্দ নেই। বরং কষ্টে থাকা মানুষের কষ্ট দূর করার মাঝে আনন্দ আছে। সারাদেশে জন্মদিনের অপসংস্কৃতির নামে খাদ্যের অপচয় হচ্ছে। কিশোরদের মনে রাখা উচিত এখনো মানুষ না খেয়ে থাকে খাদ্যের অভাবে। জন্মদিনে ডিম আর আটা নষ্ট না করে সেইগুলো কোন ক্ষুধার্ত মানুষকে উপহার দাও তোমার জন্য দোয়া করবে আজীবন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সফল নারী উদ্যোক্তা মেঘলার পথচলার গল্প

স্বপ্ন ছিলো নারী বলে বাঁকা চোখে তাকানো মানুষগুলোর চোখে সফলতার এক গল্প ছুঁড়ে দিব। সেই …

error: Content is protected !!