ময়লার নগরী

ময়লার নগরীতে পরিনত হচ্ছে কেরানীগঞ্জ

ময়লা ফালানোর সঠিক কোন স্থান ও পরিকল্পনা না থাকায় দিন দিন ময়লার নগরীতে পরিনত হচ্ছে কেরানীগঞ্জ। কেরানীগঞ্জের সর্বত্রই যেন ময়লা আবর্জনার ভাগাড়। যত্র তত্রই চোখে পড়ে ময়লা আবর্জনার স্তুপ।ময়লা আবর্জনার সমস্যাই এখন কেরানীগঞ্জবাসীর প্রধান সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে। যত্রতত্র ময়লার কারনে দিশেহারা কেরানীগঞ্জের জনসাধারন।

কেরানীগঞ্জের প্রতিটি ইউনিয়নেই ময়লার সমস্যা রয়েছে। বিভিন্ন মূলসড়ক, মহল্লার সড়ক, খোলা স্থান, খাল বিল ডোবাসহ যে যেখানে পাড়ছে যত্রতত্রই ময়লা ফেলছে। এখানকার চারদিকের বাতাসে ময়লার দুর্গন্ধ ভেসে আসে। এক একটা ময়লার স্তুপ যেন মশা তৈরীর এক একটা কারখানা। যত্রতত্র ময়লা ফেলার কারনে এখানকার জনসাধারনের মাঝে বাড়ছে রোগ বালাই। ময়লার কারনে বিভিন্ন ক্ষতিকারক পোকা মাকড় বসত বাড়িতে উঠে আসে। রাস্তা ও আশে পাশের গাছপালা নষ্ট হচ্ছে। সব মিলিয়ে ময়লার কারনে দূষিত হচ্ছে কেরানীগঞ্জের সামগ্রিক পরিবেশ।

সরেজমিন কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা ঘুড়ে দেখা যায় , যেখানে সেখানেই ময়লা আবর্জনার ভাগাড় রয়েছে। আগানগর ইউনিয়নের আমবাগিচা খেলার মাঠ সংলগ্ন প্রতিটি রাস্তায় ময়লা আবর্জনার স্তুপ রয়েছে। আগানগর ইউনিয়র স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, আমবাগিচা মহিলা কলেজসহ আগানগর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে ময়লার স্তুপ। জিনজিরা ইউনিয়নের বেড়িবাধ এলাকা, ভাগনা এলাকা, মনু বেপারীর ঢাল, জিনজিরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সহ বেশ কিছু স্থানে ময়লার ভাগাড় রয়েছে।শুভাঢ্যা ইউনিয়নের কালীগঞ্জ, খেজুরবাগ, পারগেন্ডারিয়া, চরমীরের বাগ এলাকায় একাধিক ময়লার ভাগার রয়েছে।

উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন কোনাখোলা রাজাবাড়ি সড়কের যায়গায় যায়গায় খোলা আকাশের নিচে ময়লার স্তুপ। কোনাখোলা থেকে আটি সড়কের বেশ কয়েকটি স্থানে রয়েছে ময়লার ভাগাড়।শাক্তা থেকে রামের কান্দা রোডেও রয়েছে একাধিক ময়লার ভাগাড়। কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন ঐহিত্যবাহী খালগুলো ভড়াট হয়ে গেছে ময়লা আবর্জনা দিয়ে।

 

ঐতিহ্যবাহী শুভাড্যা খালকে দেখলে এখন চেনা যায় না যে এটি খাল নাকি ময়লার ভাগাড়। ময়লা ফেলে ভাগনা খাল, , বাকা চড়াইল খাল, পাইনার খাল, সিংহ নদীও ভরে ফেলা হয়েছে প্রায়। এছাড়াও কেরানীগঞ্জের যত খাল বিল ডোবা ছিল তার সবই এখন ময়লার ভাগাড়। মোট কথা কেরানীগঞ্জের প্রতিটি ইউনিয়নের প্রতিটি এলাকায় ই চোখে পড়বে ময়লা আবর্জনার ভাগাড়।

নানান সময়ে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ এই ময়লা পরিষ্কারসহ কেরানীগঞ্জকে পরিচ্ছন্ন করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নিয়েছেন। ২০১৪ সালে শুভাড্যা খালের ময়লা পরিষ্কার করতে খরচ হয়েছিলো ১৪ কোটি টাকা। বিভিন্ন সময়ে শুভাঢ্যা খাল, ভাগনা খাল, বুড়িগঙ্গা বেড়িবাধসহ বিভিন্ন স্থানের ময়লা পরিষ্কার করতে একাধিক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলো স্থানীয় প্রশাসন। ২০১৫ সালে পুরো কেরানীগঞ্জকে সবুজ ও ময়লামুক্ত রাখার জন্য গ্রীণ ও ক্লিন কেরানীগঞ্জ নামে একটি কর্মসূচী হাতে নেয় উপজেলা প্রশাসন । এছাড়া বাসা বাড়ির ময়লা যেন যেখান সেখানে ফেলা না হয় তার জন্য ডোর টু ডোর ভ্যানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ন সড়কের ফুটপাতে ব্যবস্থা করা হয়েছিলো ডাস্টবিনের। তবে কিছু দিন যেতে না যেতেই আবার ও যত্র তত্র ময়লা ফেলা হয় । ময়লার সমস্যা সমাধানে নানান সময়ে ভেস্তে গিয়েছে একের পর এক পরিষ্কার কর্মসূচী।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ময়লার সমস্যা এখন কেরানীগঞ্জের ১ নাম্বার সমস্যা। সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ছাড়া এ সমস্যা থেকে উত্তোরন অসম্ভব প্রায়। আগে ময়লা ফেলার নির্ধারিত স্থান ও পরিকল্পনা হাতে নিতে হবে। সঠিক স্থানে ময়লা ফেলা নিশ্চিত করে পরে ময়লার ভাগাড়গুলো পরিষ্কারের উদ্দ্যোগ নিতে হবে। অন্যাথায় ময়লার ভাগাড়গুলো পরিষ্কার করে কোন লাভ হবে না। কিছুদিন পরে আবার একই চিত্র দেখা যাবে।

এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও ঢাকা ৩ আসনের এমপি নসরুল হামিদ বিপু বলেন, কেরানীগঞ্জের ময়লা পরিষ্কারের জন্য সবচেয়ে বড় দরকার হলো জনগনের সচেতনতা। তারা যদি নিজেরা সচেতন না হয়, তা হলে সরকার যা কিছু করুক না কেন, কোন সুফল পাওয়া যাবে না। যে যেখানে পারে ময়লা ফেলে। শুভাঢ্যা খাল কয়েকবার পরিষ্কার করেছি। সামনে খাল পরিষ্কার করার জন্য ১২০০ কোটি টাকার মেগা প্রজেক্ট হচ্ছে।

কিন্তু পরিষ্কার করার পরে আবার যদি এলাকাবাসী ময়লা দিয়ে ভরে ফেলে লাভ কি হবে? ময়লা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের ৫ মেগাওয়াটের একটা প্রকল্প কেরানীগঞ্জে হতে যাচ্ছে, ঐটা হলে কেরানীগঞ্জের ময়লার সমস্যার কিছু সমাধান করতে পারবো। এছাড়া স্থানীয় মেম্বার চেয়ারম্যানদের যার যার এলাকার যেখানে সেখানে ময়লা পরে না থাকে সেই ব্যাপারে আরো বেশি সচেতন হওয়া দরকার। #

নিউজ ঢাকা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জে ছাদের রেলিং ভেঙে ৯ মাসের শিশুর মৃত্যু; পরিবারের দাবী হত্যাকান্ড

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ছাদের রেলিং ভেঙে পরে গিয়ে আব্রার নামে ৯ মাসের একটি শিশু মারা গেছে। …

error: Content is protected !!