ঘাট নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত না আসায় হতাশায় ভুগছে বেকার হয়ে পড়া মাঝিরা

ঢাকার কেরানীগঞ্জে নৌ দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য তেলঘাট, সিমসন ঘাট ও ওয়াইজঘাটে নৌকা চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। বেকার হয়ে পড়েছে এই সব ঘাটের প্রায় এক হাজারের বেশি মাঝি। তারা কি করবেন? কি ভাবে চলবেন, কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না। ফলে হতাশায় ভুগছে বেকার হয়ে পড়া এ সব মাঝিরা।

সরেজমিন রবিবার ৬ সেপ্টেম্বর কেরানীগঞ্জের আলমমার্কেট ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, আগের দিনের মতোই মাঝিরা ঘাট বন্ধ হবার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছে। গার্মেন্টস পল্লীর ব্যবসায়ীরা এইদিনও মাঝিদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে তাদের দোকানপাট বন্ধ রেখে রাস্তায় নেমে এসেছে। সবার মুখেই একই  স্লোগান ঘাট পুনরায় আগের জায়গায় ফিরিয়ে দিতে হবে। মাঝি ও ব্যবসায়ীরা পুরো গার্মেন্টস পল্লী এলাকা জুড়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ আসলে, তার উপস্থিতি ও আশ্বাসের ভিত্তিতে পরিস্থিতি শান্ত হয় এবং ব্যবসায়ীরা দোকানপাট খুলে।

মো: আয়নাল নামে এক ঘাট মাঝি বলেন, ৪০ বছর ধরে নৌকা বাই, হঠাৎ করে নৌকা বন্ধ করে দিলে খামু কি ? পোলাপাইন নিয়ে কোই যাবো ?

মো: সাত্তার নামে অপর এক নৌকা মাঝি বলেন, আমার আয় দিয়া ৫ জনের সংসার চলে, আমরাও এই দেশের নাগরিক, বাচার অধিকার আমাদের ও আছে। ঘাট বন্ধ করে দিলে আমাদের আয়ের বিকল্প ব্যবস্থ করে দিক। আমরা বাচতে চাই। নাকি গরিব বইলা আমাদের বাচার অধিকার নাই ?

মো: বাবুল নামে এক গার্মেন্টস ব্যবসায়ী বলেন, বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পাইকাররা এই ঘাট দিয়ে এসে আমাদের এইখান থেকে কেনা কাটা করে। এই ঘাটকে কেন্দ্র করেই আমাদের আলম মলের ব্যবসা টিকে আছে। এখান থেকে ঘাট অপসারন করলে আমরা পরিবার নিয়ে না খেয়ে মরবো।

মো: আজাদ নামে অপর এক ব্যবসায়ী বলেন, ঘাট সরিয়ে দিলে পাইকাররা আমাদের এখানে আর আসতে চাইবে না, ধ্বংশ হয়ে যাবে তিলে তিলে সাজানো আমাদের এই ব্যবসা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা এর একটা সুষ্ঠ সমাধান চাই।

কেরানীগঞ্জ গার্মেন্টস মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মুসলীম ঢালী বলেন, নৌ দুর্ঘটনা ঘটুক তা আমরা চাই না। দেশের সর্ববৃহৎ তৈরী পোশাক মার্কেট কালীগঞ্জ গার্মেন্টস পল্লী যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয় তার দিকেও খেয়াল রাখা উচিত। সরকারের কাছে আমাদের দাবী ব্যবসায়ীরা যেন সুন্দরভাবে ব্যবসা বানিজ্য করতে পারে এবং পাইকাররা এখানে সুন্দর ভাবে আসতে পারে সেই ব্যবস্থা করে দেয়া হোক। আশা করছি উদ্ধত্বন কতৃপক্ষ আমাদের ব্যবসায়ীদের সুযোগ সুবিধার বিষয়টি দেখবেন।

কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ বলেন, ঘাটের বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যানের সাথে কথা হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী, আগানগর ও শুভাঢ্যা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, গার্মেন্টস মালিক সমিতি কতৃপক্ষসহ বিআইডবিøউটি চেয়ারম্যানের সাথে ঘাট নিয়ে একটা সুষ্ঠ সমাধানের লক্ষ্যে বসবো। আশা করি একটা সুন্দর সমাধান বের হয়ে আসবে।#

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় চুনকুটিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে শুভাঢ্যা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত …

error: Content is protected !!