নরসিংদীতে নিখোঁজের দুইদিন পর শিশুসহ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

গত শুক্রবার সকালে এক গৃহবধূ ১৮ মাসের শিশু কন্যাকে নিয়ে ঘুরতে বাহির হয়ে নিখোঁজ হয়।দুই দিন পর রবিবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে শহরের বিলাসদী এলাকার আল্লাহু চত্বরের পাশের একটি ডোবা থেকে তাদের পঁচে যাওয়া মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত সেলিনা বেগম শহরের বিলাসদী মহল্লার আল্লাহু চত্তর এলাকার মৃত মাসুদ মিয়ার স্ত্রী ও তার দেবর জহিরুল ইসলামের সন্তান নিহত ১৮ মাসের মেয়ে হাফসা আক্তার।তারা একই স্থানের বাসিন্দা।পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

ঘটনাস্থলের পাশের বাড়ির কুলসুম খাতুন নিউজ ঢাকাকে জানান, সকালের দিকে তিনি বাসা থেকে বাহির হয়ে ছিলেন শাক তুলতে। পরে বাড়ির পাশের ডোবায় মাছিদের আনাগোনা ও পঁচাগন্ধ পেয়ে তিনি দেখতে পায় শিশুসহ এক মহিলা ডোবায় ভাসছে।পরে তার চিৎকারে আশপাশের মানুষ জড়ো হয়।

নিহত শিশুর পিতা ও চাচা জানান নিউজ ঢাকাকে জানান, দুইদিন ধরে নরসিংদীর বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি ও মাইকিং করে তাদের কোন খোঁজ না পেয়ে শুক্রবার রাতে সদর মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন।রবিবার সকালে বিলাসদী মহল্লার একটি মরদেহ ভাসতে দেখে থানায় খবর দেয় স্থানীয়রা।

তারা মৃত্যুর ঘটনায় আরো জানায়, আমাদের জায়গা ও সম্পত্তি নিয়ে র্দীঘদিন যাবৎ কিছু বাহিরের লোকদের সাথে জামেলা চলছে। এটা কি দূর্ঘটনা না হত্যা ঠিক বলতে পারছিনা। তবে ভাবীর হাঁপনির সমস্যা ছিলো হয়ত এ কারণে ঘটতে পারে। এদিকে পুলিশের পাশাপাশি অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ও পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইনামুল হক সাগর জানান, মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত ছাড়া প্রাথমিকভাবে কীভাবে এ ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না। নিহতদের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

জটিল এনজিওপ্লাস্টি সফলভাবে সম্পন্ন হলো এভারকেয়ার চট্টগ্রামে

নিজস্ব প্রতিবেদক জটিল এনজিওপ্লাস্টি সফলভাবে সম্পন্ন করলো বন্দরনগরীতে অবস্থিতে এভারকেয়ার হসপিটাল চট্টগ্রাম। সিনিয়র কনসালটেন্ট অধ্যাপক …

error: Content is protected !!