তাসনুভা ইসরাতের কবিতা ‘ মৃত্যুঞ্জয়ী বীর’

 “মৃত্যুঞ্জয়ী বীর”

  -তাসনুভা ইসরাত জাহান ঐশী

রক্তমাংসে গড়া প্রমূর্ত হে সংগ্রামী পথিক,
দেশ মাতৃকার তরে নিজেকে করেছ রিক্ত,করেছ জাগ্রত,
সকলের হিয়ার গহনে লুকায়িত অসীম চেতনা
হয়েছে উম্মোচিত সকলের অসাম্প্রদায়িকতা।
নীল আকাশের গহিনে জমা বিশাল উদারতা নিয়ে,
চোখে স্বপ্ন, হাতে মৃত্যু নিয়ে,
নিজের জীবনপণ করে,
সকল জনতার মধ্যে বিদ্যমান ছোট্ট অঙ্কুর করেছ বীজে রূপান্তর,
সকলের স্পৃহার হয়েছে উন্মেষ।
তোমার আহবানে চরম বিভীষিকার তরে,
সকলে নিজেকে দিল সঁপে
দেশমাতৃকাকে রক্ষার উদ্দেশ্যে।
তোমার একটি ভাষনে ;
বীর নিরস্ত্র বাঙালি সশস্ত্র হলো লাঠিসোঁটা নিয়ে।
ভয়ে কুকড়ে উঠা বাঙালি
দেখালো ভয় তাদেরই প্রতিদ্বন্দীকে।
তারা মুক্তির উদ্দেশ্যে আপন স্বজন রেখে দিল পাড়ি এক অসীম যুদ্ধে।
বারবার কারাবরণ করেও হওনি তুমি নিরাশ,
আগরতলা ষড়যন্ত্রের মতো মিথ্যা মামলা জারি করলেও
তোমার ছিল অদম্য প্রয়াস।
সকলকে সার্বভৌম রাষ্ট্র দিলে উপহার,
নিজে পেলে না’কো মাতৃসুখ,স্নিগ্ধ পারাবার।
মৃত্যু যখন দুয়ারে তোমার,
হাসিলে তুমি, কাঁদিল ধরা বাঙালি।
সম্রাট তুমি মুকুটবিহীন বাঙালির হৃদয়পটে অঙ্কিত চিত্রায়ণ ;
মৃত্যুর পরেও তুমি অমর, সকল বাঙালির সকল প্রহর।
ক্ষয় নাই,ক্ষয় নাই যুগ হতে যুগান্তরে,
বেঁচে আছো তুমি বাঙালির মানসপটে
কবিতা পাঠ শেষে সকলের প্রশ্ন,
কে তুমি মহান?
ছোটো-বড় সকলের বঙ্গের বন্ধু,
গড়েছ তুমি ফাটলহীন অমরসিন্ধু।
খুলেছ তুমি মানুষের নিমীলিত চোখ
যার স্পর্শে উন্মোচিত হয়েছে বন্ধ দুয়ার।
আকাশে বাতাসে আজও দেখি তোমার মুগ্ধ আনন,
ফুটেছে ফুল, ভরেছে কানন।
সকলখানে বাজিছে তোমার গান,
আশীর্বাদ করো মোদের
রাখতে পারি যেন,
এই বাঙলার মান।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

গলায় ফাঁস দিয়ে রাজশাহী কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

রাজশাহীর বাঘায় আফরোজা খাতুন আঁখি (২১) নামের রাজশাহী কলেজের এক ছাত্রী ও গৃহবধু স্বামীর উপর …

error: Content is protected !!