নরসিংদীতে চালকদের জিম্মি করে নির্যাতন ও মুক্তিপণ আদায়, আটক ৩

হৃদয় এস সরকার, নরসিংদী প্রতিনিধি:
নরসিংদীতে আন্তঃজেলা অপহরণকারী চক্রের তিন সদস্যকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এই অপহরণকারী চক্র র্দীঘ দিন ধরে নরসিংদীর মহাসড়ক ও আশেপাশের জেলায় যাতায়াতকারী দূরপাল্লার বাসের চালক ও সুপারভাইজারদের আটক করে নির্যাতন এবং মুক্তিপণ আদায় করে আসছিলো।

গত শুক্রবার রাতে উপ-পরিদর্শক জাকারিয়া আলমের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল মাধবধী থানার আসমান্দীরচর এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণকারীদের ব্যবহারকৃত একটি প্রাইভেটকার উদ্ধারসহ তাদের আটক করে ।
শনিবার (১৮ জুলাই) নরসিংদী জেলা পুলিশের মিডিয়া সমন্বয়ক পুলিশ পরিদর্শক রুপণ কুমার সরকার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

আটককৃতরা হলো, মাধবদী থানার এলাকার কুড়েরপার এলাকার মৃতঃ আব্দুল ওহাব মিয়ার ছেলে মোঃ নজরুল ইসলাম (২৯), পলাশ থানা এলাকার চলনা নামাপাড়া এলাকার মোস্তফা কামালের ছেলে মোঃ সাখাওয়াত হোসেন ওরফে শওকত (৩৪),ও মাধবদী থানা এলাকার আশমান্দির চর এলাকার মৃত আয়েছ আলীর ছেলে মোঃ হাবিবুব রহমান (৩২)।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সম্প্রতি নরসিংদীর জেলা পুলিশের নিকট অভিযোগ আসছিল যে, একটি সংঘবদ্ধ দল প্রাইভেটকারে এসে নরসিংদীর নতুন বাসস্ট্যান্ড, সাহেপ্রতাপ, পাঁচদোনা, ভাটপাড়া, পুরিন্দা এলাকায় উত্তরবঙ্গ থেকে আসা বিভিন্ন বাস থেকে জোরপূর্বক চাঁদা আদায় করে আসছে। জেলা পুলিশ সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী, চাঁদাবাজ গ্রুপটিকে গ্রেফতারের টার্গেটে থাকে।

গত ১৭ জুলাই সাদ্দাম এন্টারপ্রাইজ সুপারভাইজার তিতাস পুলিশ সুপার বরাবর এ সংক্রান্তে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে বলেন গত ৩০ জুন বাস নিয়ে কুড়িগ্রাম হতে নরসিংদী আসার পর নরসিংদী নতুন বাসস্ট্যান্ড হতে অপহরণ চক্র তাকে প্রাইভেটকারে উঠিয়ে নিয়ে গাজীপুর আটক রাখে। আটকের পর তার পরিবারের সদস্যদের নিকট ফোন দিয়ে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবী করে। পরিবার ১০ হাজার টাকা বিকাশে পরিশোধ করলে তিতাস মুক্তি পায়। তাকে ২ দিন পর দুপুরে নরসিংদী জেলার পাঁচদোনা মোড়ে ফেলে রেখে চলে যায়।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে নরসিংদী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক জাকারিয়া আলম এর নেতৃত্বে তদন্তে নামে গোয়েন্দা পুলিশ। জাকারিয়া আলম তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় আসামীদের অবস্থান শনাক্ত করেন। এরপর অভিযান চালিয়ে ৩ জন কে গ্রেফতার করেন। পরে আসামীদের দেওয়া তথ্য মতে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত প্রাইভেটকার উদ্ধার করেন। এসময় অপহরণ কাজে মুক্তিপণ গ্রহণে ব্যবহৃত মোবাইল নম্বর সম্বলিত মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা আন্তঃজেলা অপহরণ, ছিনতাইকারী দলের সক্রিয় সদস্য, তারা সংঘবদ্ধভাবে নরসিংদী, গাজীপুর, নারায়নগঞ্জ জেলার মহাসড়কে অপহরণ, ছিনতাই কার্যক্রম করে আসছিল। তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় খুন, অপহরণ, ছিনতাই, মাদক মামলা রয়েছে। জেলা পুলিশের একাধিক টিম এই ধরনের অপরাধীদের গ্রেফতারে কাজ করছে।

মাধবদী থানায় ভুক্তভোগী সুপারভাইজার তিতাস এর দায়ের করা মামলায় গ্রেফতারকৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেকের ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সদরঘাটে পা পিছলে পুলিশের এসআই’র মৃত্যু

ঢাকার সদরঘাটে টার্মিনালের পল্টুন থেকে পা পিছলে নদীতে পড়ে পুলিশের এক এসআই’র মৃত্যু হয়েছে। নিহত …

error: Content is protected !!