প্রতিবন্ধী ভাতার

নাটোরে প্রতিবন্ধীর ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে

নাটোরের লালপুরে ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী বৃষ্টি আকতার নিজের নামে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ডের জন্য ইউপি সদস্যকে টাকা দিয়েও কার্ড হয়নি। বৃষ্টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট এ নিয়ে অভিযোগ করেছেন।

জানা যায়, লালপুর উপজেলার ৩ নং চংধুপইল ইউনিয়নের পোকন্দা ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য কামরুল ইসলাম প্রতিবন্ধী ভাতা কার্ড করে দেয়ার কথা বলে প্রায় ৩ বছর আগে শারিরিক প্রতিবন্ধী বৃষ্টি আকতারের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা নেয়।

বৃষ্টি আকতারের বাবা কাশেম মুনসী ৮ বছর আগে মারা যাওয়ায় মা মনোয়ারা বেগম গার্মেন্সে চাকরি করে সংসার পরিচালনা করে। নানী চাইনা বেগম ও ছোট ভাই মাইনুলকে সাথে নিয়ে গ্রামের বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করছে, সে করিমপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী। ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম কার্ড না করে দিয়ে ঘুরাতে থাকে। এ ব্যাপারে বৃষ্টি আকতার লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে।

বৃষ্টি আক্তার বলেন, আমার বাবা অনেক আগে মারা গেছেন। আমরা খুবই গরির। এবং আমি একজন প্রতিবদ্ধী। কামরুল মেম্বর আমার থেকে ২হাজার টাকা নিয়েছে প্রতিবদ্ধী ভাতার কার্ড করে দেওয়ার জন্য। কিন্তু অনেকদিন তার পেছন পেছন ঘুরেও সে আমাকে ভাতার কার্ড করে দিচ্ছে না। শুধু নানা রকম তালবাহানা করছে।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, এটা পূর্বের একটা জের, আমি টাকা নিতে যাব কেন।

লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি বলেন, এ ব্যাপারে মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে খোঁজ খবর নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,আজ জবি সাংবাদিক সমিতির ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

পরিত্যক্ত ভবনের

নাটোরে সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয় ভবন ভাঙার অভিযোগ

সরকারি অনুমতি ছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবনের বারান্দা, দেওয়াল ও খুঁটি ভাঙ্গার অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয় …