ভূয়া সেনাবাহিনীর

কেরানীগঞ্জে ভূয়া সেনাবাহিনী সদস্য আটক করেছে মডেল থানা পুলিশ

ঢাকার কেরানীগঞ্জে মডেল থানাধীন ঘাটারচর এলাকা থেকে এক ভূয়া সেনাবাহিনীর সদস্যকে আটক করেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। আটককৃত ব্যক্তির নাম মো. সুমন মুন্সি (২৯)। মডেল থানাধীন ঘাটারচর এলাকায় জৈনক হেদায়েতুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থাকে । তার গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার রাজপাট গ্রামে।

মডেল থানা সুত্রে জানা যায়, মো. রাকিবুল ইসলাম নামক এক যুবক তার বান্ধবীকে নিয়ে ঘাটারচর শান্তিনগরে ঘুরতে আসে । এসময় মো. সুমন মুন্সি সেনা সদস্য পরিচয় দিয়ে রাকিবুল ও তার বান্ধবী কে আটক করে তার বাসায় নিয়ে যায়।
এরপরে সাড়ে চার হাজার টাকার বিনিময়ে রাকিবুলের বান্ধুবীকে ছাড়লেও রাকিবুলের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা দাবী করে। টাকা দিতে না পারায় রাকিবুলকে সে ব্যাপক মারধর করতে থাকে।

একপর্যায়ে সুমন রাকিবুলের মোবাইল ফোন দিয়ে তার খালার কাছে ২০হাজার টাকা চায়। বিষয়টি তার খালা কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের কাছে জানায়।

পরে মঙ্গল বার রাতে পুলিশ ঘাটারচর এলাকায় সুমন মুন্সির বাসায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে এবং রাকিবুলকে উদ্ধার করে।

এ সময় সুমনের কাছ থেকে সেনাবাহিনীর একটি আইডি কার্ড, সেনাবাহিনীর ইউনিফর্মের একটি ফুলহাতা শার্ট, প্যান্ট, সেনাবাহিনীর ক্যাপ ও কালো একজােড়া বুট জুতা উদ্ধার করা হয়।

এই ঘটনায় মো. রাকিবুল ইসলাম রাতেই বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত সুমন মুন্সি একজন চাকুরিচ্যুত সেনা সদস্য।
সে কখনো র‌্যাবের পরিচয় দেয় আবার কখনো সেনাবাহিনীর পরিচয় দিয়। দীর্ঘদিন যাবত মানুষের সাথে প্রতারনা করে আসছিল।তার বিরুদ্ধে আগেও মামলা আছে।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,পুরান ঢাকার অনেক কেমিক্যাল গুদাম এখন কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন আবাসিক এলাকায়

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

কেরানীগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবক গ্রুপের সমন্বয় কমিটি গঠিত

কেরানীগঞ্জের সামাজিক উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করা অন্যতম সামাজিক সংগঠন কেরানীগঞ্জ স্বেচ্ছাসেবক গ্রুপের কাজে আরও …

error: Content is protected !!