রক্তাক্ত স্মৃতিতে

রক্তাক্ত স্মৃতিতে নাটোরের শহীদ মমতাজ উদ্দীন

সজিবুল ইসলাম হৃদয়ঃ ২০০৩ সালের ০৬ জুন দেশের ইতিহাসে নানা ঘটনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হলেও নাটোরের লালপুর বাগাতিপাড়া মানুষের জন্য দিনটি রক্তাক্ত স্মৃতিতে মিশ্রিত। দিনটিতে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছিল নাটোর-১ অাসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় অাওয়ামীলীগ নেতা মমতাজ উদ্দীনকে।

১৭ বছর আগের দিনটি এখনো নাড়া দেয় লালপুর বাগাতিপাড়া সহ নাটোরবাসীর মনে। অত্যন্ত জন‌প্রিয় এই রাজনৈতিক নেতার প্রয়া‌ণে স্থানীয় সাধারণ জনগণ হা‌রি‌য়ে‌ছে অাওয়ামীলীগের জন‌প্রিয় ধারার এক জনপ্রতিনিধিকে। সময়ের ঘূর্ণায়মান চাকায় শহীদ মমতাজ উদ্দীন না থাকাটা বেদনাময় অতীত। তারপরও এদিনটি উপলক্ষে লালপুর বাগাতিপাড়া উপজেলা অাওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনসহ তার পরিবারের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ, মিলাদ মাহফিল, স্বরণ সভা সহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিনটি পালন করে অাসছে।

বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ মমতাজ উদ্দীন ১৯৮৬-১৯৮৮ সালে তৃতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাটোর-১ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। এছাড়াও তিনি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন। ২০০১ সালে জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন কিন্তু বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ফজলুর রহমান পটলের নিকট পরাজিত হন।

২০০৩ সালের ০৬ জুন বিএনপি সহ জামায়ত ইসলামী চার দলীয় জোট সরকারের অামলে মমতাজ উদ্দিন দলীয় কাজ শেষে রাত ১০টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে গোপালপুর থেকে আব্দুলপুরের মিল্কিপাড়ার নিজ বাড়ি ফেরার পথে দাইড়পাড়ার নেঙ্গপাড়ার রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে তাকে কুপিয়ে নৃশংসভাবে খুন করা হয়। সেই জায়গায় তার স্মৃতির স্মরণে ২০০৪ সালে নির্মিত হয়েছে চিরঞ্জীব শহীদ মমতাজ উদ্দীন স্মরণ সৌধ। যা অাজও অাওয়ামীলীগের নেতাকর্মী সহ সাধারণ জনগণের মাঝে বাঁচিয়ে রেখেছে এক অবিসংবাদিত নেতাকে।

উল্লেখ্য, ১৩ মার্চ ২০১৩ সালে রাজশাহীর একটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল মমতাজ উদ্দীপনকে হত্যা করার দায়ে নয়জনকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীব কারাদণ্ড দেয় এবং প্রত্যেককে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করে।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,পাঁচ ধাপ মেনে Covid-19 থেকে মুক্তির পথে কুয়েত।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

সৈনিকলীগের উদ্যাগে

মিজানপুর ইউনিয়ন বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের উদ্যেগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি

রাজবাড়ী সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়ন বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের উদ্যাগে সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সেলিম শেখ কাশেমের …