সোনালী ধানের

নীপিড়িত জনতার পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা যুববন্ধু এন আই আহমেদ সৈকত

কখনো তাকে দেখা যায় সোনালী ধানের ক্ষেতে কৃষকের পাশে। কখনোবা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বল্প আয়ের কর্মচারী এবং দরিদ্র শিক্ষার্থীদের পাশে।

কখনো দেখা যায় নীপিড়িত মানুষের দোড়গোরায় ভালোবাসার উপহার নিয়ে পৌছে যেতে। করোনাযুদ্ধের এই অসহনীয় দুর্ভোগে যুবলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী চেয়ারম্যান  অধ্যাপক শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মঈনুল হোসেন খান নিখিল এর নির্দেশে সারা বাংলাদেশে ত্রান কার্যক্রমে অংশ গ্রহন করা ছাড়াও সম্প্রতি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্বল্প আয়ের অস্থায়ী কর্মচারী এবং দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মধ্যে শত শত প্যাকেট ঈদ সামগ্রী বিতরন করেছেন।

শ্রমিক ও অর্থ সংকটে নাকাল দরিদ্র কৃষকের পাশে থেকে ধান কেটে কৃষকের বাড়িতে পৌছে দিয়েছেন সহাস্যে! বুকে তাঁর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ আর মানবতার হাতে খড়ি আলোর ফেরিওয়ালা খ্যাত জননেতা নসরুল হামিদ বিপুর প্রায়োগিক শিক্ষা ধারন করে অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশের যেকোন বিপর্যয় ও দূর্যোগে নিজে সামর্থের সবটুকু দিয়ে নিপীড়িত মানুষের পাশে থাকবার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উদীয়মান পরিশ্রমী নেতা যুববন্ধু এন আই আহমেদ সৈকত!

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,করোনা মুক্তিতে নরসিংদী সিটির এপেক্স ক্লাবের মোনাজাত

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

পরিশুদ্ধ অন্ধভক্ত

অব্যক্ত কিছু স্মৃতির অনূভূতিতে লুকায়িত এক ব্যক্তিত্ব “শাহীন আহমেদ”

কাওসার আহমেদ: গল্পের শুরুটায় ছিল আবেগ প্রবণ কিছু কার্যকলাপ, হয়তো ভালোবাসা নয়তো পাগলামি, জানি না, …