বাউল রণেশ ঠাকুরের ঘরে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় জবি মুক্তমঞ্চ পরিষদের প্রতিবাদ

সম্প্রতি বিখ্যাত বাউল শিল্পী রণেশ ঠাকুরের গানের ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় প্রতিবাদ ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তমঞ্চ পরিষদ।মঙ্গলবার (১৯ মে) জবি মুক্তমঞ্চ পরিষদের সভাপতি মো.নাঈম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দেব স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে প্রতিবাদের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, গত ১৭ মে রাতে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার উজানধন গ্রামে অবস্থানরত বাংলাদেশের প্রখ্যাত বাউল শিল্পী রণেশ ঠাকুরের আস্তানায় অগ্নি সংযোগ করে চল্লিশ বছরের সাধনার বই, বাদ্যযন্ত্র এবং ঘর পুড়ে দেওয়ায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের “মুক্তমঞ্চ পরিষদ” রণেশ ঠাকুরের প্রতি গভীর সমবেদনা ও অপরাধীদের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানাচ্ছে। পাশাপাশি দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছে। আমরা গভীর উদ্বেগের সাথে বলতে চাই, এ ঘটনার মধ্য দিয়ে আবারও প্রমাণিত হলো বর্তমান বাংলাদেশে সাংস্কৃতিক চর্চা কতটা হুমকির মুখে! এখনই যদি এই অপরাধীদের উপযুক্ত শাস্তির বিধান না করা হয় তবে ভবিষ্যৎ-এ এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে।

আমরা পূর্বেও অনেক ব্লগার,সাহিত্যিক এবং বাউল শিল্পীদের উপর বর্বর নির্যাতন চালানো দেখেছি। যেগুলোর উপযুক্ত শাস্তির বিধান না হওয়ার ফলেই এমন একটি ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে বলে আমরা মনে করি। ফলশ্রুতিতে আমরা বলতে চাই, বর্তমান ঘটনার অপরাধীদের পাশাপাশি পূর্বের ঘটনার দোষীদেরও উপযুক্ত শাস্তির আওতায় আনা হোক। তা না হলে বাঙালি জাতি ভবিষ্যৎ এ সাংস্কৃতিক পরিচয় হারিয়ে ফেলবে।

উল্লেখ্য, গত ১৭ মে রাতে বাংলাদেশের প্রখ্যাত বাউল রণেশ ঠাকুরের ঘরে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এসময় তার সাধনার বিভিন্ন বই সহ অনেক বাদ্যযন্ত্র পুড়ে যায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

৮জুন খুলছে জবি, বন্ধ থাকবে ক্লাস-পরীক্ষা

 মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রকোপে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে খুলতে যাচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।আগামী ৮ জুন …

error: Content is protected !!