৩৩৩ হটলাইনে ফোনের ভিত্তিতে খাদ্য সহায়তা বাড়ি বাড়ি পৌছে দিলো উপজেলা প্রশাসন

সরকারী হটলাইন নাম্বার ‘৩৩৩’ তে ফোনের ভিত্তিতে  কেরাণীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় খেটে খাওয়া অসহায়  ৪২টি পরিবারের মাঝে সরকারি ত্রাণ সরবরাহ করে উপজেলা প্রশাসন। ৫ এপ্রিল রবিবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে  এ ত্রাণ পৌছে দেন কেরানীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার সানজিদা পারভীন।

এছাড়াও কেরানীগঞ্জের  শুভাঢ্যা ইউনিয়নে স্থানীয় সেচ্ছাসেবকদের সহায়তায় গাড়ীতে করে   চাল ডাল আলু তেল নিয়ে প্রায় ৮০০ অসহায় খেটে খাওয়া পরিবারের মাঝে  খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়।

সানজিদা পারভীন বলেন, ভয়ংকর এই দু:সময়ে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমরা (উপজেলা প্রশাসন)  প্রতি মুহূর্ত আপনাদের আশে আছি। অনুরোধ এই দুর্যোগের দিনগুলিতে আরো একটু মানবিক হই। করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে ঘরে থাকি, অকারণে কোথাও আড্ডা এবং ঘোরাঘুরি বন্ধ করি। যারা খাদ্যাভাবে কষ্ট পাচ্ছেন, নিজের পরিচয় প্রকাশ করতে লজ্জা পাচ্ছেন বা অন্য কোথাও থেকে সাহায্য পাচ্ছেন না তারা ৩৩৩ নম্বরে কল দিয়ে নিজের ঠিকানা দিন। আমরা খাবার নিয়ে যাব আপনাদের ঘরে। অনুরোধ, আপনারা ঘরে থাকুন। নিরাপদে থাকুন।

কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিত দেবনাথ বলেন, শুধু সরকারী হট লাইন নয়  আমাদের ব্যাক্তিগত নাম্বারে ফোন দিয়েও অনেকে তাদের কষ্টের কথা জানিয়েছেন। আমরা ফোন পাওয়া মাত্রই প্রতিটি পরিবারের মাঝে ত্রান পৌছে দেয়ার চেষ্টা করছি। আমাদের জানা মতে কেরানীগঞ্জে একটি পরিবার ও না খেয়ে থাকবে না। প্রতিটি পরিবারকে খাদ্য নিশ্চিত করাই আমাদের লক্ষ্য। যাদের সাহায্য দরকার তাদের কাছে যেন আমরা তা পৌছে দিতে পারি সেই চেষ্টাই করবো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

মেসভাড়া নিয়ে চরম ভোগান্তিতে জবি শিক্ষার্থীরা

করোনার ভয়াবহ প্রকোপে অসহায়ত্বের শিকার হলবিহীন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।ক্যাম্পাস বন্ধ থাকলেও পিছু ছাড়েনি মেসভাড়া সংক্রান্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!