প্রশাসনিক নজরদারি

নরসিংদীতে করোনা আতঙ্কে মাস্কের মূল্য ৪ গুণ প্রশাসনের নজরদারি অভাব বলছে ক্রেতা

হৃদয় এস সরকার, নরসিংদী প্রতিনিধিঃ নরসিংদীতে চীনের নভেল করোনাভাইরাস বিস্তারের আতঙ্কে শহরের বাজার ও ফার্মেসির দোকান গুলোতে সার্জিক্যাল মাস্ক বা মুখোশের দাম বেড়েছে ৩ থেকে ৪ গুণ নেই মাঠ পর্যায়ে তেমন কোন প্রশাসনিক নজরদারি যে কারণে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অতিরিক্ত টাকা আদায় করেছে বলে অভিযোগ মাস্ক কিনতে আসা ভুক্তভোগী ক্রেতাদের।

৫ টাকার সার্জিক্যাল মাস্ক বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে ১৫ টাকায় আর ৫৫ থেকে ১০০ টাকার প্যাকেট মাস্ক-এর মূল্য উঠেছে সাড়ে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা পর্যন্ত।

দাম বৃদ্ধির জন্য আমদানি বন্ধ থাকাকে অজুহাত হিসেবে দেখাচ্ছেন শহরের ফার্মেসি ব্যবসায়ীরা। বিশ্বব্যাপী বর্তমানে নতুন ‘আতঙ্ক’র নাম নভেল করোনাভাইরাস।

মানুষ থেকে মানুষে ছড়িয়ে পড়া নতুন এই ভাইরাসে আকান্ত হয়ে এরই মধ্যে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১১৫ জন্যে এবং চিন ও বিভিন্ন দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪ হাজার ১৩৮ জন্য ছাড়িয়েছে বলে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ‘আল জাজিরা’ খবর নিশ্চিত করেছে।

ভাইরাসটির শনাক্তস্থলে প্রতিনিয়ত আক্রান্ত হচ্ছেন মানুষ। শুধু তাই নয়, চীনের সীমানা পেরিয়ে এটি বর্তমানে ছড়িয়ে পড়েছে অন্তত আরো ২৬ টি দেশে। সবশেষ বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার তথ্যানুযায়ী একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, চীনের বাইরে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তে সন্তাক্ত পাওয়া গিয়েছে থাইল্যান্ডে, সিঙ্গাপুরে, তাইওয়ানে, হংকংয়ে, ম্যাকাওয়ে, জাপানে, ভিয়েতনামে, দক্ষিণ কোরিয়ায়, যুক্তরাষ্ট্রে এবং আমাদের পাশ্ববর্তী দেশ ভারতে এ ভাইরাসের অস্তিত্ব শনাক্ত করা হয়েছে।

এনিয়ে পুরো বিশ্ব ব্যাপী সর্বস্তরের মানুষদের মাঝে সৃষ্টি হয়েছে আতষ্কের। ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে সকল মানুষদের রাস্তায় চলাচল ও সবসময় সার্জিক্যাল মাস্ক বা মুখোশ ব্যবহারের জন্যে গবেষক ও ডাক্তাররা পরামর্শ দিচ্ছেন। এ ভাইরাস আতঙ্কের কারণে বাংলাদেশেও বেড়েছে মাস্কের চাহিদা।

এদিকে নরসিংদীতে ভাইরাস আতঙ্কে মাস্ক কিনতে ব্যস্ত মানুষ। হঠাৎ এই সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে মাস্কের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। সরেজমিনে নরসিংদী সদরের রেল স্টেশন রোড ও পৌরসভা সংলগ্ন সিএন্ডবি রোডের ঔষুধের ফার্মেসি গুলোতে গিয়ে দেখা যায় অনেকেই করোনা ভাইরাস আতেঙ্কে সার্জিক্যাল মাস্ক কিনতে দোকান গুলোতে ভিড় জমাচ্ছে।

কিছু কিছু দোকানে প্রর্যাপ্ত মাস্ক থাকলেও দোকানীরা প্রত্যেক মাস্ক প্রতি পূর্বের নিধারিত টাকার চেয়ে তিন থেকে চার গুণ অতিরিক্ত টাকা নিচ্ছেন বলে অভিযোগ করছেন মাস্ক কিনতে আসা ক্রেতারা ।

নরসিংদী স্টেশন রোডের ফার্মেসিতে মাস্ক কিনতে এসেছিলেন তপন সাহা তিনি নিউজ ঢাকা ২৪ কে জানায়, যে মাস্ক সপ্তাহ পূর্বেই ৫ টাকা করে কিনেছি তা এখন ১৫ থেকে ২০ টাকা মূল্য চাচ্ছে।

এবং অধিংকাশ দোকানেই মাস্কের নেই বলছেন বিক্রেতারা। এখন পর্যন্ত ৭ টি ফার্মেসিতে গেলাম মাস্ক কিনতে পেলাম দুইটা দোকানেই তাও আবার দাম তিন থেকে চার গুণ বেশী। তাপস সাহা নিউজ ঢাকাকে আরো বলেন, দোকানের লোকদের মাস্কের দাম বেশী কেনো জিগ্যেসা করলে তারা বলছে প্রর্যাপ্ত সরবরাহ নেই তাই মাস্কের এতো দাম ।

অতিরিক্ত দাম কেনো! এটার জন্য উচিত বাজার মনিটরিং করা প্রশাননের। যাতে কোন অসাধু ব্যবসায়ী নিধারিত মূলের থেকে বেশী দাম নিতে না পারে বলেন তিনি।

ফাতেমা আক্তারা নামে একজন শিক্ষিকা নিউজ ঢাকা ২৫ কে জানায়, বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাস আতঙ্ক দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। টিভিতে খবরে প্রতিদিই দেখছি করনো ভাইরাসের কত মানুষ মারা যাচ্ছে এবং এই প্রাণঘাতী ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে সবসময় মাস্ক পরতে বলছে সবাই। তাই পূর্ব সর্তকতা হিসেবে মাস্ক কিনতে এসেছি কিন্তু দামের ঊর্ধ্বগতিতে মাস্ক কেনার আশা ছেড়ে দিয়ে বাসায় ফিরে যাচ্ছি।

নিউজ ঢাকা কে ফাতেমা আক্তার আরো বলেন, কিছু দিন আগে পেঁয়াজের সংকটের মিথ্যা কথা বলে পেঁয়াজের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বৃদ্ধি করে কিছু অসাধু মানুষ নিজেদের ফাঁয়দা লুটতে।

যার কারণে আমাদের মতো নিম্ন আয়ের মানুষেরা সমস্যার মধ্যে পরেছিলাম। এবারও মনে হচ্ছে মাস্ক কে ঘিরে একটা সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। সংকট দেখিয়ে দাম বাড়িয়ে দিচ্ছে।

প্রশাসনের উঠিত খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে এই মাস্কের বিষয়টি নজরে নিয়ে যর্থাযর্থ ব্যবস্থা গ্রহণ করার। এ বিষয়ে বিক্রেতাদের সাথে কথা বললে তারা দিচ্ছেন নানান অযোহাত ।

বলছেন প্রর্যাপ্ত মাস্ক আমরা না পেলে কি ভাবে বিক্রি করবো এবং যে কারণে আমাদেরও কাস্টমারদের কাছে কথা শুনতে হচ্ছে। তাই মাস্ক বিক্রি বন্ধই করে দিয়েছি। ৩০০ বা ৪০০ টাকা দিয়ে মাস্করে বক্স কিনে তা অতিরিক্ত দামে আমরাও বিক্রি করলে নানান রকম কথা শুনতে হয়।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,ভোলায় নবীকে কটুক্তির প্রতিবাদে জেলা যুবদলের বিক্ষোভ সমাবেশ

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

পরিত্যক্ত ভবনের

নাটোরে সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয় ভবন ভাঙার অভিযোগ

সরকারি অনুমতি ছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবনের বারান্দা, দেওয়াল ও খুঁটি ভাঙ্গার অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.