এখনো ভয় কাটে নি এলাকাবাসীর

কেরানীগঞ্জে রাসায়নিক গুদামে বিষ্ফোরনের ১ দিন পার হয়ে গেলেও এখনো ভয় কাটে নি এলাকাবাসীর। তিনটি গুদামের মধ্যে একটি গুদাম এখনো অক্ষত অবস্থায় আছে। যার মধ্যে কয়েক শত কেমিক্যালের বস্তা মজুদ রয়েছে । ফের দুর্ঘটনার সম্ভাবনার কথা চিন্তা করে এলাকাবাসীর মনে ভয় বিরাজ করছে আবারো ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।

সরেজমিন সোমবার সকালে দুর্ঘটনা স্থল কেরানীগঞ্জের জিনজিরা ইউনিয়নের পূর্ববন্ধ ডাকপারা এলাকায় গিয়ে দেখা যায়। দুর্ঘটনা কবলিত গোডাউনটি পুলিশ প্রহরায় রয়েছে। ভিতরে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস ও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ৪ এর কর্মীরা। বিষ্ফোরনের তীব্রতা এতটাই ভয়ানক ছিলো যে, মাটি থেকে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ ফিট ওপরে জাতীয় গ্রীডের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন দুটি মেইন তার বিষ্ফোরনের সময় ছিরে নিচে পরে যায়।

সকাল থেকেই তার দুটি উঠানোর চেষ্টা করে যাচ্ছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মীরা। অক্ষত গুদামটিতে ঢুকে দেখা যায় থাকে থাকে সাজানো আছে বিভিন্ন কেমিক্যালের বস্তা। এগুলোর একটির ও মেয়াদ নেই। মূলত মেয়াদ উর্ত্তীন কেমিক্যাল হবার কারনেই দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশে পাশের অনেকেই ধারনা করছেন।কেরানীগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের সেকেন্ড ইন কমান্ড মফিজুর রহমান জানান, গতকাল দুর্ঘটনার পর থেকেই ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ও পানির গাড়ী ঘটনাস্থলে অবস্থান করছে।

তিনটি গাডাউনের একটিতে বেশ কিছু কেমিক্যালের বস্তা এখনো আছে, তাই এলাকাবাসীর মনে ভয় রয়েছে, যে কোন সময় আবার দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এলাকাবাসির ভয় কাটানোর জন্য আমরা গতকাল থেকেই সারা রাত জেগে এখানেই অবস্থান করছি।

এদিকে এলাকাবাসী কয়েজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, ভবনটির মালিক ও গুদামের মালিক মো: মারুফ হোসেন চিকিৎসার জন্য গত ১০ দিন যাবৎ সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। তিনি এখানে খুব একটা আসেন না। এখানে তার একজন ম্যানেজার নিয়োগ দেয়া আছে। মূলত এই গোডাউনটি ম্যানেজারই দেখা শোনা করেন। ঘটনার পর থেকে ম্যানেজার পলাতক রয়েছে।

এ ব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি কাজি মাইনুল ইসলাম পিপিএম জানান, ঘটনার পর পুলিশ বাদী হয়ে দুর্ঘটনার কথা উল্লেখ করে থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে। সাধারন জনগনের ভিতরে পরবর্তিতে আতংক না ছড়ানোর জন্য ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটির আহবায়ক সকহকারী কমিশনার ভুমি ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ কামরুল হাসান সোহেল জানান, আমরা তদন্ত শুরু করেছি। কেমিক্যালের গুদামটি সম্পূর্ন অবৈধভাবে ছিল। গুদামের মালিক ম্যানেজার না থাকার কারনে তথ্য সংগ্রহ করতে বিলম্ব হচ্ছে। আশা করছি খুব শ্রিগ্রই তদন্ত শেষ করতে পারবো।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,লালপুরে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উদ্বোধন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ঝুমন দাসের মুক্তির দাবিতে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ

বিনোদন প্রতিবেদক :আল সামাদ রুবেল সুনামগঞ্জের শাল্লায় সাম্প্রদায়িক নিপিড়নের শিকার ও নিবর্তনমূলক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!