রাজশাহীতে

পেঁয়াজ ছাড়া মুরগী খাওয়া দায়, রাজশাহীতে কেজি ২২০!

 

সজিবুল ইসলাম হৃদয়ঃশিক্ষা নগরী খ্যাত রাজশাহীতে আবাসিক শিক্ষার্থীদের বেশির ভাগই ডাইনিং এ রান্না করা খাবার খেতে হয়। যার মান খুব একটা উন্নত মানের না অন্যন্য মাংস বা মাছের থেকে তুলনা মূলক দাম কম থাকায় ডাইনিং জাতীয় খাবার খালার হাতে আলু দিয়ে বয়লার মুরগী রান্না।

যা খেতে খেতে অভক্তি ধরে গেছে আর এখন পেঁয়াজের লাগামহীন দামে প্রায় পেঁয়াজ ছাড়ায় রান্না হচ্ছে, যা মুখে দেওয়ায় দায়.. নিউজ ঢাকা ২৪ কে এমনটায় অভিযোগ করছিলেন আবু উবায়েদ নামে এক শিক্ষার্থী।

রাজশাহী পলিটেকনিকের শহিদ হাসান নামে এক শিক্ষার্থী নিউজ ঢাকা ২৪ কে জানান, কলেজের ছাত্রাবাস না থাকায় উপশহরের একটি ছাত্রাবাসে থাকেন। তাদের ডাইনিং এ রান্না করার জন্য সাধারণত প্রতিদিন ১ কেজি করে পেঁয়াজ কেনা হয়। কিন্তু দামের যা অবস্থা! এক প্রকার বাধ্য হয়েই ২৫০-৩০০ গ্রাম পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) নগরীর সাহেব বাজার, শালবাগান কাঁচা বাজার, উপশহর কাচা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, একদিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকা দরে।

এমতাবস্থায়, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পেঁয়াজের দাম শিক্ষার্থীদের সাধ্যের বাইরে চলে যাওয়ায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে শিক্ষার্থী সহ সাধারণ মানুষের। পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারা সরকারের একটি বড় ব্যর্থতা বলে মনে করেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চম অধিবেশনে সরকারি দলের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন খানের প্রশ্নে বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির অনুপস্থিতিতে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ চাহিদার তুলনায় পেঁয়াজ কম উৎপাদন ও ভারত রফতানি বন্ধ করায় হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,কেরানীগঞ্জ জাতীয় শোক দিবস পালিত

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

পরিত্যক্ত ভবনের

নাটোরে সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয় ভবন ভাঙার অভিযোগ

সরকারি অনুমতি ছাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ভবনের বারান্দা, দেওয়াল ও খুঁটি ভাঙ্গার অভিযোগ উঠেছে বিদ্যালয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.