মতিঝিলের

বিএনপি জামাতের মূল টার্গেট মতিঝিলের এ কে এম সাঈদ

মতিঝিলে জামাত বিএনপির মূল আতংক এ কে এম সাঈদ।বিভিন্ন সময় আন্দোলন সংগ্রাম করে সফল হতে পারে নি সাঈদের জন্য।মতিঝিলের আওয়ামী লীগের মূল শক্তি এই কর্মীবান্ধব এ কে এম মমিনুল সাঈদ কে ধ্বংস করার জন্য বিভিন্ন সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ মিডিয়া কে ব্যবহার করতো বিএনপি জামাত।

বিএনপি জামাতের ঘাঁটিকে আওয়ামী লীগের দূর্গ হিসেবে রূপ দিয়েছেন সাঈদ।রাজনীতিক পরিবারের এই সাঈদের জন্ম মতিঝিলেই।

সাঈদের দাদা ১৯২৯ সালে ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয় ছিলেন।ন্যাশনাল মেডিকেল এন্ড নিওরো সাইন্স এমবিবিএস এর শেষ বর্ষের ছাত্র ছিলেন।সে সময় নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ঢাকায় আসলে তার সাথে ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে একাত্বতা প্রকাশ করেন এবং আন্দোলনে সক্রিয় থাকার দায়ে এমবিবিএস এর শেষ বর্ষের পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে দেয় নি কর্তৃপক্ষ!

সাঈদের বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা ১৯৭০ সালে বি:বাড়িয়া নবীনগর আঞ্চলিক ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ছিলেন।১৯৭৩ সালে বি:বাড়িয়া আঞ্চলিক আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।

সাঈদের চাচা এ কে এম মোজাম্মেল হক বি:বাড়িয়া জেলা পরিষদের সদস্য।

সাঈদের ভাই আনোয়ার পারভেজ তার নিজ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত চেয়ারম্যান।

সাঈদ ১৯৯৬ সালে ৩২ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সহ সভাপতি ছিলেন পাশাপাশি বঙ্গভবন স্কুল কেন্দ্র ইউনিট আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।

১৯৯৯ সালে মতিঝিল থানা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি।
২০০০ সালে ৩২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের আহবায়ক কমিটির ১নং যুগ্ম আহবায়ক ছিলেন।
২০০২ সালে ৩ ফেব্রুয়ারী ৩২ নং ওয়ার্ড বর্তমান ৯নং ওয়ারেড় যুবলীগের কাউন্সিলের মাধ্যমে নির্বাচিত সভাপতি।
২০১২ সালের ১৪ই জুলাই মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পান।

দীর্ঘ এই রাজনৈতিক চলার পথে সাঈদ সফলতার এবং দক্ষতার সাথে পাড়ি দিয়েছেন।জনগনের আস্থা অর্জন করে তাদের ভালোবাসায় এবং ভোটে নির্বাচিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর হয়েছেন।

জনগনের ভালোবাসার প্রতি কৃতজ্ঞ থেকে মতিঝিল এলাকা থেকে মাদক-সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজী বন্ধ করতে সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে এসেছেন।নিজ অর্থায়নে এলাকার যাতায়াত ব্যবস্থা উন্নতিকরনের লক্ষ্যে রাস্তা করে দিয়েছেন।নিরাপত্তার দিক বিবেচনা করে এলার মূল এবং গুরুত্বপূর্ণ জায়গা গুলোতে গেট বসিয়েছেন।

ছিনতাই এবং মাদক ব্যবসায়ীদের দৌরত্ব কমাতে সিকিউরিটি গার্ড রেখেছেন।যা এর আগে কোন ওয়ারেড় কাউন্সিলর রা করতে পারে নি।তাই সাঈদের ভালো কাজ গুলোতে ঈর্শান্নিত হয়ে জামাত বিএনপি তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছে।কারন সাঈদকে ধ্বংস করতে পারলেই মতিঝিল দখলে আনা সহজ হবে বিএনপি জামাতের।

 নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,উন্নত স্বাস্থ্যসেবার ব্রত নিয়ে কাজ করছে বসুন্ধরা আদ্-দ্বীন মেডিকেল কলেজ

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

মিডিয়া বিএনপি কে বাচিয়ে রেখেছে : কামরুল ইসলাম

সাবেক খাদ্য মন্ত্রী ও ঢাকা-২ আসনের এমপি এ্যাড: মো: কামরুল ইসলাম বলেছেন, বিএনপি কোন দল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!