হামলার প্রতিবাদে

বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে জবিতে দফায় দফায় মানববন্ধন

অপূর্ব চৌধুরী, জবি প্রতিনিধি:গত শনিবার (২১সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে উপাচার্যের পরোক্ষ মদদে হামলার প্রতিবাদে আজ রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে কয়েক দফা মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এই মানববন্ধনসমূহে অংশগ্রহণ করেন বাংলাদেশ প্রগতিশীল ছাত্রজোট -জবি শাখা, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ- জবি শাখা, জবিতে অধ্যয়নরত গোপালগঞ্জ জেলা এবং অন্যান্য জেলার সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

গত শনিবার (২১সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের স্বৈরাচারী আচরণ, তুচ্ছ কারণে ফাতেমা তুজ জিনিয়া নামে একজন সাধারণ শিক্ষার্থী ও ক্যাম্পাস প্রতিনিধিকে বহিষ্কার ও হয়রানি করা,সাধারণ শিক্ষার্থীদেরকে বিশ্রী ভাষায় গালিগালাজ করা সহ অন্যান্য অপকর্মের দায়ভার নিয়ে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেছিলেন। সেসময় বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের পরোক্ষ মদদে একদল সশস্ত্র গুন্ডা বাহিনী সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

যে হামলায় প্রায় ৫০ জন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়। এইভাবে একজন

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের পরোক্ষ মদদে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনা বাংলাদেশের ইতিহাসে দুর্লভ।

বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ওপর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধনে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ -জবি শাখার আহবায়ক রাইসুল ইসলাম নয়ন বলেন, যে ব্যাক্তি একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হওয়ার যোগ্যতা রাখে না তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) মত একটি স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বানানো হয়েছে।আমরা এমন যোগ্যতাহীন ও অসৎ ব্যাক্তিকে উপাচার্য পদ থেকে অপসারণের দাবি জানাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনকে নৈতিকভাবে সমর্থন জানাচ্ছি।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত গোপালগঞ্জ জেলার একজন সাধারণ শিক্ষার্থী বলেন,বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্য খন্দকার নাসির উদ্দিনের বিরুদ্ধে দূর্নীতি, নারী কেলেঙ্কারি, স্বৈরাচারীতা সহ আরও অনেক ধরনের অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে।বশেমুরবিপ্রবির আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর এমন বর্বর হামলার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ এবং বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট -জবি শাখার সভাপতি প্রসেনজিৎ সরকার বলেন, আমরা বশেমুরবিপ্রবির সাধারণ শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে এমন ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সেই সাথে অনতিবিলম্বে এএ সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাচ্ছি।বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদেরকে বিশ্রী ভাষায় গালিগালাজ করা, ফেসবুকে সামান্য একটি স্ট্যাটাস এর জন্য একজন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা উপাচার্যের স্বৈরাচারী মনোভাবেরই ববহিঃপ্রকাশ। আমরা অবিলম্বে বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগ চাই।

মানববন্ধনে উপস্থিত অন্যান্য বক্তারাও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিত হামলা করে তাদেরকে রক্তাক্ত করার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ এবং প্রতিবাদ জানান। সেই সাথে দ্রুত বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরে বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের কতিপয় অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তার অপসারণের দাবিতে নিয়মিত আন্দোলন করে যাচ্ছেন।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে খোলা চিঠিতে হিরো আলম যা লিখেছেন

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ইবি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ নাছির উদ্দীনের নতুন বই

পল্লব আহমেদ সিয়াম, ইবি প্রতিনিধি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!