প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থীদের

থমকে আছে জকসু গঠনতন্ত্র প্রণয়ন

অপূর্ব চৌধুরী, জবি প্রতিনিধি: থমকে পড়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ( জকসু) এর গঠনতন্ত্র প্রণয়ন কাজ। গত ১ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে জকসু এর গঠনতন্ত্র প্রণয়নের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাসকে আহবায়ক করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেন।

৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন সংশোধনের জন্য সুপারিশ প্রদান এবং জকসু গঠনতন্ত্র প্রণয়নের জন্য কমিটিকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

জকসু গঠনতন্ত্র প্রণয়নের নির্ধারিত সময় শেষ হয়ে গেলেও কমিটির কাজে কোন অগ্রগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। যার ফলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মাঝে আবারও শঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে জকসু এর গঠনতন্ত্র প্রণয়ন নিয়ে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ এর কোন বিধান না থাকার জন্যই জকসু এর গঠনতন্ত্র প্রণয়নের জন্য উক্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গত ১ জুলাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের উথ্বাপিত ৭ দফা দাবির মধ্যে ১টি দাবি ছিল যে, জকসু আইনের খসড়া করে আগামী ৪মাসের মধ্যে জকসু নির্বাচন দিতে হবে।

জকসু এর গঠনতন্ত্র প্রণয়নের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে কমিটির আহবায়ক এবং আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাস বলেন, জকসুর মুল গঠনতন্ত্র প্রণয়ন শেষের দিকে। গত সপ্তাহে এটির টাইপিং এর কাজ শুরু হয়েছে।খুব দ্রুত এটি সম্পন্ন হবে।

এই ব্যাপারে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখার আহবায়ক রাইসুল ইসলাম নয়ন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবসময়ই আমাদেরকে আশা দিয়েছেন কিন্তু প্রকৃতপক্ষে কোন ফলাফল পাইনি। জকসু এর গঠনতন্ত্র প্রণয়ন কমিটির কার্যকাল শেষ হয়ে গিয়েছে কিন্তু এখনো এটা সম্পন্ন হয়নি।আমরা আগামী রবিবার ক্যাম্পাসে গিয়ে প্রশাসনের সাথে কথা বলে আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব।

এইদিকে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফন্ট জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি প্রসেনজিৎ সরকার ও সাধারণ সম্পাদক অনিমেষ রায় এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, ১২ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) জকসু গঠনতন্ত্র প্রণয়নের জন্য নির্ধারিত ৪৫ কার্যদিবস শেষ হলেও কমিটির কাজের কোন অগ্রগতি নেই।

কমিটি এখন পর্যন্ত কোন রিপোর্ট ও জমা দিতে পারেনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারী সবার নির্বাচনই সঠিক সময়ে হয় কিন্তু জকসুর কথা বললেই প্রশাসন শুধু গড়িমসি করে।প্রশাসনকে হুশিয়ারি দিয়ে বিবৃতিতে আরও বলা হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নামার আগেই জকসুর গঠনতন্ত্র প্রণয়ন করুন।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে জগন্নাথ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় রুপান্তরিত হওয়ার আগে পর্যন্ত ১৮ বছর ধরে কোন ছাত্র সংসদ নির্বাচন হয়নি।আর জগন্নাথ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে রুপান্তরিত হওয়ার সময়ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০০৫ এ ছাত্র সংসদের অধ্যাদেশযুক্ত হয়নি।

এর ফলে প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে ছাত্র ও সংসদ অধ্যাদেশ যুক্ত এবং নির্বাচনের উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।যার ফলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ১৪ বছর পার হলেও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (জকসু) এর গঠনতন্ত্র প্রণয়ন এবং নির্বাচন সম্ভব হয় নি।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,দায়িত্ব পালনে অবহেলায় রাজবাড়ীতে ৬ শিক্ষককে অব্যাহতি

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

ঠাকুরগাঁওয়ে ট্রাক্টর দিয়ে ধানক্ষেত নষ্টের অভিযোগ

সুমন হাসান বাপ্পি ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে বিবাদমান জমি দখল নিতে ধান ক্ষেত ট্রাক্টর/ মাহেন্দ্র দিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!