ধানমন্ডি লেক
ধানমন্ডি লেক

ধানমন্ডি লেক , ঢাকায় প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের বিশাল সমাহার

ইট পাথরের শহরে সবাই   নিজেকে  নিয়ে ব্যাস্ত  থাকেএই ব্যস্ততার মাঝে মানুষ খুজে একটু শান্তির জায়গা আর সে দিক থেকে বিবেচনা করলে, ধানমন্ডি লেক প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক বিশাল সমাহার

অনেকেই  ধানমন্ডির প্রান বলে থাকে এই লেক কে। লেকটি দেখতে শান্তি প্রিয় মানুষ গুলো প্রতিনিয়ত ভিড় জমাচ্ছে ধানমন্ডিতে।ধানমন্ডি লেক এ গাছপালা ও রয়েছে  অনেক। অাছে বসার পর্যাপ্ত পরিমান জায়গা। খানিক কিছুটা পথ হাটলেই দেখা যাবে  লোকজনের ভীড়।তাদের নিরাপত্তার জন্য ২০-৪০ জনের এক দল কর্মী এখানে নিয়োজিত রয়েছে । প্রতিনিয়ত পাহাড়া দিচ্ছে তারা।আর ভ্রমন প্রিয় মানুষ গুলোর খাবারের  দিক বিবেচনা করে এখানে রয়েছে সিটি কর্পোরেসন লিজ দেওয়া কিছু  খাবারের দোকান।

আরো রয়েছে বিভিন্ন মুল পয়েন্টে  চা খাবার বিশেষ ব্যবস্থা।স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির জার্নালিজম এর  ছাএ প্রিতমের মতে রাজধানীর যদি কোন শান্তির জায়গা থাকে তাহলে ধানমন্ডি লেক অন্যতম।এখানের প্রাকৃতিক পরিবেশ তার কাছে অনেক ভাল লাগে। সে অারো বলে এই লেকে বেশিরভাগই ছাএ -ছাত্রীদের আনাগোনা বেশি।এছারা বিভিন্ন শ্রমজীবি মানুষদের দেখা মিলে এই লেকে।

লেকটি  ঘুরে সরোজমিনে দেখা গেল, কিছু লোক লেকের পাশে মাছ ধরছে।তারা বললেন সখের বসে এ্‌ই খানে মাছ ধরতে আসি । এখানের পরিবেশ টা ও অনেক ভাল। কিছু টাকার বিনিময়ে ধরা যায় মাছ।

সকালের চিত্রটা নাকি একটু অন্যরকম। সারিবদ্ধ ভাবে শারিরিক ব্যায়াম করার জন্য অাসে নানা শ্রেণির লোকজন।লেকটির  পাকা রাস্তা বয়ে যাওয়ায় বিভিন্ন জায়গা থেকে ডায়াবেটিস রোগীদের অানাগোনা বেশি এই লেকে।

নষ্ট হয়ে যাচ্ছে ধানমন্ডি লেক:

লেকটির সম্পর্কে অারো খোজ নিতে চাইলে বের হয়ে আসে অন্য রকম কিছু তথ্য।প্রতিদিন এখানে আসা অপু নামে এক ব্যাক্তি জানায় লেক ভাল তবে  রাতের দৃশ্যপট তা ভিন্ন। প্রায় দেখা যায় কিছু বখাটে ছেলে এখানে এসে নানা রকম অন্যায় কাজে লিপ্ত থাকে।কিছু কিছু লোক কে নাকি দেখা যায়  নেশা করতে। তেমন আইন কানুন না থাকায় যে যার মত খারাপ কাজ করতে থাকে।

এছাড়া লেক সম্পর্কে অারো অনেকেই বলে অযত্নে আর অবহেলায় দিন দিন সোন্দর্য হারাতে বসেছে লেকটি।প্রায়ই লেকের আশে পাশে দেখা যায় ময়লার স্তুপ। এছাড়া নষ্ট হয়ে যাচ্ছে লেকের বিভিন্ন স্থাপনা।সরকারের উচিত এই লেককে ভালভাবে পরিচালনা করা।কারন লেকটির অবস্থা যদি দিনের পর দিন খারাপ হতে থাকে তাহলে এর সৌন্দর্য এক সময় বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

 

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

পত্রিকা বিক্রেতা আরজুর সাইকেল চুরি

মোঃনূর ইসলাম (আশিক)ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুর ফুলবাড়ীর একমাত্র মহিলা পত্রিকা বিক্রেতা (হকার) মোছাঃ আরজু আক্তারের …

error: Content is protected !!