মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড পেলেন পটুয়াখালীর রুমানা ইসলাম

মোঃ এরশাদঃ পটুয়াখালীর রুমানা ইসলাম
নিজের কর্মের মর্যাদা -সম্মাননা স্বরূপ নারী উদ্যোক্তা হিসেবে বিশেষ অবদান রাখার জন্য মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০১৯ এ ভুষিত হলেন পটুয়াখালীর রুমানা ইসলাম।

তিনি পটুয়াখালী জেলার পি,টি,আই রোডের মোঃ মহিতুল ইসলামের স্ত্রী, মহিতুল ইসলাম একজন ঠিকাদার ব্যবসায়ী ছিলেন , রুমানা ইসলাম নিজ উদ্যোগে ২০০০ সালে পটুয়াখালী জেলার পি,টি,আই রোডে একটি পার্লার ও একটি বুটিকস্ হাউজ নিয়ে কাজ শুরু করেন।তার কারুকার্য দেখে এলাকার বেকার মহিলারা তার কাছে কাজ শিখতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে রুমানা ইসলাম একটি পার্লার ও বুটিকস্ হাউজ ট্রেনিং সেন্টার তৈরী করেন। রুমানা ইসলাম তার কাজের মাধ্যমে দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে পড়ালেখা করান ,বড় মেয়ে পটুয়াখালী সরকারী কলেজে হিসাব বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স পাশ করেন । ছেলে (এ,আই,ইউ,বি ) থেকে (ইইই) ,ইলেক্ট্রক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এ অধ্যায়নরত আছেন । রুমানা আজ স্বাবলম্বী,রুমানার হাত ধরে পটুয়াখালীর বেশকিছু নারীও আজ স্বাবলম্বী ।

তার কর্মের সম্মান দেখিয়ে আলোকিত বাংলার মুখ ফাউন্ডেশন মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড-২০১৯ এ ভুশিত করেছেন। ১৫ মার্চ ২০১৯ শুক্রবার বিকালে আখতার ইমাম অডিটোরিয়াম ,৩ সেগুন বাগিচা,ঢাকা এ মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিচারপতি সিকদার মকবুল হক।

বিচারপতি সিকদার মকবুল হক এর হাত থেকে মাদার তেরেসা গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড গ্রহন করেন রুমানা ইসলাম ।বিশেষ অতিথি ছিলেন আফরিন আহমেদ হ্যাপি (সিনিয়ার জেলা সহকারী জজ) ,জেলা জজ আদালত -ঢাকা , অতিরিক্ত সচিব-অর্থ মন্ত্রনালয় -পীরজাদা শহিদুল হারুন । এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন চিত্র নায়িকা নূতন ও দিলারা ইসলাম ।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

জবিতে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে গণস্বাক্ষর কর্মসূচী

অপূর্ব চৌধুরী, জবি প্রতিনিধিঃ সম্প্রতি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নারী শিক্ষার্থীর সাথে যৌন হয়ারানির ঘটনায় ও …

error: Content is protected !!