রবি মুহাম্মদের “জননী জন্মভূমি” এক ব্যতিক্রম ধর্মী সৃষ্টি।

সুকান্ত সরকার,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের স্বাধীনতার কারিগর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এই স্বাধীনতার জন্য বছরের পর বছর তাকে সংগ্রাম করতে হয়েছে পাকিস্তানি শাসকদের বিরুদ্ধে। এই সংগ্রামে সর্বদা যিনি তার পাশে ছিলেন, শক্তি ও সাহস যুগিয়েছেন তিনি হলেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব।

এমনকি একাত্তরের সাতই মার্চ বিশাল জনসভায় স্বাধীনতা উন্মুখ জাতিকে কি বলবেন এই ভেবে বঙ্গবন্ধু যখন অস্থিরচিত্তে ছিলেন তখনও এগিয়ে এসেছিলেন বঙ্গজননী। কিন্তু বাংলার স্বাধীনতার পরোক্ষ কারিগর প্রচারবিমুখ এই মহীয়সী নারীর সম্পর্কে খুব কমই জানে বর্তমান তরুণ প্রজন্ম। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অনেক গ্রন্থ রচনা হলেও বঙ্গমাতাকে নিয়ে রচিত গ্রন্থ খুবই কম। বিশেষ করে কাব্যগ্রন্থ নাই বললেই চলে । আর তাই কাব্যিকভাবে তরুণ প্রজন্মের কাছে বাংলার স্বাধীনতার এই পরোক্ষে কারিগরের জীবনকাহিনী তুলে ধরতেই বঙ্গমাতাকে নিয়ে “জননী জন্মভূমি” কাব্যগ্রন্থ রচনা করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও মনোবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান রবি মুহাম্মদ । 54 টি কবিতা সম্বলিত এ কাব্যগ্রন্থের প্রতিটি কবিতায় ফুটে উঠেছে এক মমতাময়ী নারীর জীবন চিত্র ।সংসারী হয়েও যিনি রাজনৈতিক গুরুর সহচারী ছিলেন। বিশেষ করে “মহিয়সী নারী” এবং “প্রহসন” কবিতা দুটিতে কবি তার আবেগী লেখনীর সাহায্য যেভাবে বঙ্গমাতার শৈশবে এতিম হওয়া থেকে বাংলাদেশের সব থেকে সফল প্রধানমন্ত্রীর মাতা হওয়ার কাহিনী ফুটিয়ে তুলেছেন তা যে কারো হৃদয় স্পর্শ করবে। মধুমতির তীরে, আমি বঙ্গমাতার কথা বলছি, ধন্যা মাগো, মায়ের কান্না, অমর এসব কবিতা যেন বঙ্গ জননীর বাস্তব জীবন চিত্র । তাছাড়া বেশ কিছু রূপক কবিতা যেমন- আকাশ, বাতাস, নদী, অতিথি, জীবন, ভব সংসার এ যেন বঙ্গমাতাকে কবি নতুনভাবে আবিষ্কার করেছেন জাতির কাছে । কেবল জীবনী গ্রন্থ নয় কাব্যগ্রন্থের মাধ্যমেও যে কারো জীবনচিত্রকে সুন্দর ও সাবলীলভাবে ফুটিয়ে তোলা যায় তা “জননী জন্মভূমি” কাব্যগ্রন্থের মাধ্যমে প্রমাণ করেছেন লেখক রবি মুহাম্মদ । কবির সুদক্ষ লেখনীতে প্রতিটি কবিতাই হয়ে উঠেছে প্রাণবন্ত। অর্থনীতিবিদ হলেও পেশায় শিক্ষক এই লেখক দীর্ঘদিন ধরেই যুক্ত আছেন সাহিত্যচর্চার সাথে। এ পর্যন্ত তার তিনটি কাব্যগ্রন্থ এবং পাচঁটি উপন্যাস সহ আটটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচিত “মৃত্যুন্জয়ী বঙ্গবন্ধু” নামক একটি কাব্যগ্রন্থ যা পাঠক মহলে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে । ২০১৮ সালে প্রকাশিত লেখকের অনন্য সৃষ্টি “স্মৃতিময় বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ স্বপ্ন বুনে” বইটি রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সর্বস্তরের পাঠকমহলে বেশ সাড়া ফেলেছিলো।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

Check Also

শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে ভাষাশহীদ রফিক পরিষদের যাত্রা শুরু

জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গদের সাথে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!