Breaking News
Home / সারাদেশ / রাজবাড়ীতে শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের পক্ষ থেকে কম্বল বিতরন
কম্বল বিতরন

রাজবাড়ীতে শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের পক্ষ থেকে কম্বল বিতরন

শেখ রনজু আহাম্মেদ রাজবাড়ী জেলা : রাজবাড়ীতে শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের উদ্যোগে শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরন করা হয়েছে।শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজবাড়ী জেলা শহরের হরিসভা মন্দির প্রাঙ্গনে কম্বল বিতরন অনুষ্ঠানে শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের সভাপতি সাবেক কাষ্টমস কর্মকর্তা বিশিষ্ট সমাজ সেবক শিবুপদ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের সাধারন সম্পাদক ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ রাজবাড়ী জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক জয়দেব কর্মকার, শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক শুক্লা সরকার, শ্যামল কুমার পোদ্দার, রাহুল কুমার বক্তৃতা করেন।

পরে শ্রী কৃঞ্চ সেবা সংঘের উদ্যোগে এক শত শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরন করা হয়।
সভাপতির বক্তৃতায় সাবেক কাষ্টমস কর্মকর্তা শিবুপদ বিশ্বাস বলেন, এই সংঘঠনের সাধারন সম্পাদকসহ সকল সদস্যদের নিয়ে সংগঠনটি কার্যক্রম বেগবান করা হচ্ছে। সকলের সহযোগিতায় একশত কম্বল বিতরন করা হলো। আগামীতে আরো বড় আকারে কম্বল বিতরন করা হবে। যাতে সকলেই শীত নিবারন করতে পারে।

রাজবাড়ীতে মুড়িকাটার পর এবার হালি পেয়াজ চাষ বাড়ছে

মুড়িকাটা পেয়াজের ভালো দাম পাওয়ায় এখন হালি পেয়াজ রোপন শুরু করেছেন রাজবাড়ীর কৃষকেরা। পেয়াজ আবাদের ভরা মৌসুম।

মুড়িকাটা পেয়াজ তোলার সাথে সাথেই একই জমিতে রোপন করা হচ্ছে হালি পেয়াজ। যেন কৃষকের দম ফেলারও সময় নেই। পেয়াজের আকাশচুম্বি দাম তাই কাক ডাকা ভোর থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করছেন রাজবাড়ীর কৃষকেরা। মসলা জাতীয় এই ফসলের ভালো দাম পাওয়ায় এখন পেয়াজের পর আবার পেয়াজ চাষই তাদের লক্ষ্য।

মুড়ি কাটার মতো হালি পেয়াজেও ভালো দাম মিলবে বলে আশা করছেন তারা। তিন মাস পরেই বাজারে আসবে এই পেয়াজ তখনই বাজার স্বাভাবিক হবে বলে মনে করছেন কৃষক।

জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের তথ্যমতে, এ বছরও রাজবাড়ীতে ২৮,২৯৫ হেক্টর জমিতে পেয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এ থেকে ৩ লক্ষ্য ১১ হাজার ৬৮ মেট্রিক টন পেয়াজ উৎপাদন হবে বলে আশা করছেন কৃষি বিভাগ।

রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার হরিন বাড়িয়ার চর এলাকায় গিয়ে দেখাযায়, সেখানে মাঠের পর মাঠ শুধু শীত কালীন সবজি আবাদ হয়েছে। যার মধ্যে পেয়াজই বেশি।

এরই মধ্যে ৬০ ভাগ মুটিকাটা পেয়াজ তোলা শেষ হয়েছে। যে জমিতে মুড়িকাটা পেয়াজ তোলা শেষ হয়েছে সেই জমিতে আবার নতুন করে রোপন করা হচ্ছে হালি জাতের পেয়াজ। সারিবদ্ধভাবে পেয়াজ রোপন করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন তারা।

এ সময় হরিন বাড়িয়ার চর এলাকায় কৃষক আমজাদ হোসেন জানান, এ বছর পেয়াজে খুবই লাভবান হয়েছি। তাই দিন দিন পেয়াজ চাষেই ঝুকছেন তারা। বিগত বছরের লোকসান এ বছর উঠবে।

পেয়াজ চাষ করে এই অঞ্চলের কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে অপর কৃষক আরজু মনি জানান, এখন রাজবাড়ীর বাজারে পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে এক’শ থেকে এক’শ দশ টাকায়। বাজারে প্রচুর পেয়াজ রয়েছে।সিন্ডিকেট ও অসাধু ব্যবসায়ীদের কারনেই ঢাকার পেয়াজ দ্বিগুন দামে কিনতে হচ্ছে।

বেলগাছি এলাকার কৃষক শেখ খায়রুল ইসলাম বলেন, এই অঞ্চলের বেশিরভাগ মানুষ কৃষি কাজের সাথে সম্পৃক্ত। পেয়াজের ভালো দাম পেয়ে আমরা অত্যন্ত খুজি তাই এখন হালি পেয়াজ রোপন করছি। তবে কৃষি বিভাগের কোন কর্মকর্তা মাঠ পর্যায়ে আসে না, আমাদের কোন পরামর্র্শ দেয় না। মাঝে মধ্যে ঔষুধ কোম্পানির লোক আসে। কৃষি কর্মকর্তারা সঠিক পরামর্শ প্রদান করলে আমরা আরো লাভবান হতে পারতাম।

কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তর রাজবাড়ীর উপ-পরিচালক গোপাল কৃঞ্চ দাস বলেন, রাজবাড়ীতে মুড়ি কাটা, দানা ও হালি পেয়াজ আবাদ হয়। এ বছর পেয়াজ পরিপক্ক হওয়ার আগেই চাষিরা উত্তোলন করে ফেলেছে যে কারনে উৎপাদন কম হলেও দাম পেয়েছে ভালো। ভালো দাম পাওয়ার কারনে পেয়াজ চাষেই ঝুকছেন তারা। পেয়াজ চাষে চাষিদের বিভিন্ন পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

নিউজ ঢাকা

আরো পড়ুন,পাকিস্তানের চেয়ে একধাপ এগিয়ে ভারত : সাবেক পাক সেনা

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

About নিউজ ঢাকা ২৪

Check Also

মহানগর

পহেলা মার্চ রাজশাহী মহানগর আ’লীগের সন্মেলন

সজিবুল ইসলাম হৃদয়ঃ রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন আগামী ১ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। দীর্ঘ ৫বছর ...

উপসহকারী

রাজবাড়ীতে জনপ্রতিনিধিকে মারপিট করেছে উপসহকারী প্রকৌশলী

শেখ রনজু আহাম্মেদ রাজবাড়ী প্রতিনিধি ঃ রাজবাড়ী সদর উপজেলার চন্দনী ইউনিয়নের হড়াই নদী খননের নামে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *