ছোট বোনের বিয়ে খাওয়া হলো না জমসেদার; সুরভী -৭ ধাক্কায় নিখোঁজ-৬, উদ্ধার-২

শরিয়তপুর জেলার সখিপুর থানার দক্ষিন তারা বুনিয়ার জাফর আলী মালের কান্দিগ্রামে শুক্রবার আপন ছোট বোন খাদিজার বিয়ে অনুষ্ঠানে যোগদান করার জন্য জমসেদার স্বামী-সন্তানসহ চাচাত ভাই শাহজালাল -ভাইয়ের স্ত্রী সাহিদা ও তাদের দুই মেয়ে মিম ও মাহিকে নিয়ে রওনা দেন জমসেদা।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় তারা কামরাঙিরচর এলাকা থেকে একটি খেয়া নৌকা নিয়ে সদরঘাটের উদ্যোশে পাড়ি জমান। লক্ষ নদী পথে লঞ্চ দিয়ে তারা রাতে দেশের বাড়ি শরিয়তপুওে যাবে।

তাদের খেয়া নৌকাটি রাত সাড়ে ১০টার দিয়ে সদরঘাট ২নং টার্মিনালের কাছে পৌছলে সেখান থেকে বরিশালের উদ্যেশে ছাড়া লঞ্চ এম ভি সুরভী-৭ পিছন দিকে বেগার দিলে।

জমসেদাদের খেয়া নৌকাটি সাথে সাথে ডুবে যায়। এ ঘটনার পর পর আশপাশের লোকজন জমসেদার চাচাত ভাই শাহজালালকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে। প্রথমে স্যারসলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল পরে সেখান থেকে পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার পর পরই সদরঘাট ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলএবং নৌ পুলিশ নিখোঁজদের উদ্ধারের তৎপরতা চালায়। এদিকে ঘাতক সুরভী-৭ লঞ্চটি বরিশালের উদ্যেশে চলে যায়। সুরভী-৭ লঞ্চের পাখার আঘাতে শাহ জালালের দু’পা বিছিন্ন হয়ে যায়। সে পেশায় একজন দর্জি ছিলেন। ঢাকার কামরাঙ্গির চরে  পরিবার সহ ভাড়া থাকতেন।

পঙ্গু হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে শাহ জালালের অবস্থা আশংঙ্কা জনক। এদিকে শুক্রবার শাহ জালালের গ্রামের বাড়ি শরিয়তপুরে শখিপুরে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার সহদর বোন আয়শা জানায় শুক্রবার তার চাচা কামাল চৌকদারের ছোট মেয়ে জামসেদার আপন ছোট বোন খাদিজার বিয়ে অনুষ্ঠান চলছে। ঐ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য ঢাকা থেকে শরিয়তপুরের সখিপুর আশার জন্য ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ র্টামিনালে যেতে ঐ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

গতকাল শুক্রবার দুপুর ১১ টায় কোস্টগার্ড, ডুবারু সদস্যরা বুড়িগঙ্গা নদীর মিল ব্যারাক পুলিশ লাইনের কাছ থেকে জামসেদার মৃত দেহ উদ্ধার করে। মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়ে দেন।

এরপর দুপুরে দিকে ধলেশ্বও বালুর ঘাট এলাকা থেকে সাহিদার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠান।
গতকাল বিকেলেই নিহতদের স্বজনরা এসে লাশ সনাক্ত করেন।৷ এই লাশ সনাক্তের মাধ্যমে নিখোঁজ ৬ জনের মধ্যে ২জন উদ্ধার হলেও বাকী রয়েছে আরো চারজনের।

অপরদিকে সকাল ১১ টায় পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একে এম এনামুল হক শামীম (এম.পি)সদরঘাটে লঞ্চ টার্মিনালে ঘটনা স্থল পরিদর্শণ করে গণমাধ্যম কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেনঅভিযুক্ত সুরভী-৭ এর বিরুদ্ধে মামলাসহ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিআইডাব্লিউটিএ- শুক্রবার তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত টিম গঠন করেছে।তারা আগামী তিন দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন পেশ করার পর যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে কর্মকর্তারা। শুক্রবার বিকাল ৫টার পর উদ্ধার অভিযান স্থগিত রাখা হয়। শনিবার সকাল ৯টা থেকেনিখোঁজদের উদ্ধারের তৎপরতা চালাবে ডুবারুরা।

এ ব্যাপারে দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ শাহজামান এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, নৌ দুর্ঘটায় এ পর্যন্ত কোন দুই নারীর লাশ উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। কোস্টগার্ড, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল, নৌ-পুলিশ ও আমাদের থানা পুলিশের উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে এ ঘঠনায় এ পর্যন্ত কেউ কোনঅভিযোগ নিয়ে আমার থানায় আসেনি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে [sharethis-inline-buttons]

Check Also

কেরানীগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাচ্ছে ১৫ গৃহহীন পরিবার

দেশে একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’ মুজিবর্বষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসাবে আশ্রয়ণ প্রকল্পরে আওতায় …

error: Content is protected !!