ইন্টারনেট ব্যবসাকে সন্ত্রাসমুক্ত করার দাবি

ইন্টারনেট ব্যবসাকে সন্ত্রাসমুক্ত করার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন।

রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশে এক সময় টেলিভিশন ক্যাবল ব্যবসা নিয়ে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালিত হতো। এমনকি এ ব্যবসায় আধিপত্য বজায় রাখতে অনেক হত্যাকাণ্ডও সংঘটিত হয়েছিল। বর্তমান ইন্টারনেট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে একই অবস্থা তৈরি হয়েছে।’

ইন্টারনেট ব্যবসাও রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় হচ্ছে বলে অভিযোগ তার, ‘সারাদেশে তারের জঞ্জাল সৃষ্টিও এর অন্যতম একটি কারণ। বর্তমানে বৈধ ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার (আইএসপি) আছে ২ হাজার ১০০। আর অবৈধভাবে ব্যবসা পরিচালনা করছে ৩ হাজার ৫০০। টেলিভিশন ক্যাবল অপারেটর আছে ৪ হাজার। এর মধ্যে ১০ ভাগ বৈধভাবে ইন্টারনেট ব্যবসা করে। বাকি ৯০ ভাগই রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় বা পেশির বলে ব্যবসা করে থাকে। এসব ইন্টারনেট ব্যবসায়ীর হাতে প্রতিনিয়তই লাঞ্ছিত হচ্ছেন নিরীহ গ্রাহকরা।’

মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বলেন, ‘শনিবার খিলগাঁওয়ে একটি কুরিয়ার ব্যবসায় ইন্টারনেট ব্যবসায়ী হামলা করে নগদ টাকা হাতিয়ে নেওয়াসহ গ্রাহককে লাঞ্ছিত করেছে, শুধুমাত্র দুর্বল নেটওয়ার্ক ঠিক করতে বলায়।’

এই ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে মহিউদ্দীন বলেন, ‘ইন্টারনেট ব্যবসায়ী সমিতি গ্রাহকদের বিল দিতে কষ্ট হয় বলে অশ্লীল কার্টুন প্রকাশ করে গ্রাহকদের সঙ্গে উপহাস করেছে। আমরা এই সন্ত্রাসী, অপরাধী, সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী ইন্টারনেট ব্যবসায়ীকে দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানাচ্ছি।’

অবৈধ ব্যবসায়ীদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ ও একই সঙ্গে লাইসেন্স প্রাপ্ত যারা অপকর্মে লিপ্ত, তাদের লাইসেন্স বাতিলসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিটিআরসি ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নজর দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সংগঠনটির সভাপতি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে [sharethis-inline-buttons]

Check Also

রোবট ‘সিনা’র পর কুবি শিক্ষার্থীদের নতুন আবিষ্কার রোবট ‘ব্লুবেরি’

কুবি প্রতিনিধি: কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের(কুবি) শিক্ষার্থীরা এক নতুন রোবট আবিষ্কার করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র সঞ্জিত …

error: Content is protected !!